মাদরাসাছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে অধ্যক্ষসহ ৩ শিক্ষক গ্রেফতার - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

মাদরাসাছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে অধ্যক্ষসহ ৩ শিক্ষক গ্রেফতার

ফেনী প্রতিনিধি |

ফেনীর দাগনভূঞায় এক ছাত্রকে ধর্ষণের (বলৎকার) অভিযোগে দায়ের করা মামলায় তিন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের সমাসপুর আনোয়ারুল উলুম মাদরাসা থেকে শিক্ষকদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দাগনভূঞা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থপ্রতিম দেব।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- আনোয়ারুল উলুম মাদরাসার প্রিন্সিপাল আব্দুস সাত্তার (৪০), সহকারী শিক্ষক জাকিরুল ইসলাম (৩৯) ও কিতাব বিভাগের শিক্ষক আফতাব উদ্দিন (৪০)।

  

মামলার এজহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সমাসপুর আনোয়ারুল উলুম মাদরাসার হেফজ বিভাগের আবাসিক এক ছাত্রকে গত ৩০শে ডিসেম্বর বিকেলে হেফজ বিভাগের সহকারী শিক্ষক মো. কাউছার কৌশলে তার কক্ষে নিয়ে যায়। ছাত্রটি যখন তার কক্ষে আসে তখন শিক্ষক তাকে মাদরাসার টয়লেটে নিয়ে ধর্ষণ (বলাৎকার) করে করে। পরবর্তীতে ওই ছাত্র বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে তার মাদরাসার প্রিন্সিপালকে অবহিত করে। মাদরাসা কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রর মা বাদী হয়ে দাগনভূঞা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলায় মাদরাসার প্রিন্সিপালসহ চার শিক্ষককে আসামি করা হয়।

পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থপ্রতিম দেব জানান, গ্রেফতারকৃত তিন শিক্ষক মামলার প্রধান আসামিকে পালাতে সহযোগিতা করায় ভুক্তভোগী ছাত্রের মা তাদেরকে মামলায় আসামি করেছে। প্রধান আসামি পলাতক থাকায় তাকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস - dainik shiksha মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের please click here to view dainikshiksha website