মাদরাসা প্রভাষকদের পদোন্নতি দিতে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা চায় অধিদপ্তর - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

মাদরাসা প্রভাষকদের পদোন্নতি দিতে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা চায় অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক |

চাকরির আট বছর পুর্তিতে এমপিওভুক্ত মাদরাসার অর্ধেক প্রভাষকদের জ্যেষ্ঠ প্রভাষক ও সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি সুযোগ রাখা হয়েছে সংশোধিত এমপিও নীতিমালায়। আলিম মাদরাসার প্রভাষকদের জ্যেষ্ঠ প্রভাষক এবং ফাজিল ও কামিল মাদরাসার প্রভাষকরা সহকারী অধ্যাপক পদের পদোন্নতি পাবেন। গত নভেম্বরে প্রভাষকদের পদোন্নতির প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন এনে এভাবেই মাদরাসার সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো প্রকাশিত হয়। কিন্তু নীতিমালা জারির ১১ মাস পরও অর্ধেক প্রভাষকের পদোন্নতির প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। 

এ পরিস্থিতিতে প্রভাষকদের পদোন্নতির বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা চেয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তর বলছে, সংশোধিত নীতিমালা জারির পর বিভিন্ন মাদরাসার প্রভাষকরা সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির জন্য অনলাইনে আবেদন করলেও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা না থাকায় এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া যাচ্ছে না।

চিঠিতে অধিদপ্তর বলছে, ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোতে বলা আছে, এমপিওভুক্ত প্রভাষকরা এমপিওভুক্তির আট বছর পূর্তিতে ৫০ শতাংশ হিসেবে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন। এত মোট পদসংখ্যা বৃদ্ধি পাবে না। একই নীতিমালায় আলিম মাদরাসার জন্য জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের কথা বলা আছে এবং পদোন্নতির শর্ত হিসেবে প্রভাষক হিসেবে এমপিওভুক্ত পদে আট বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতার কথা বলা আছে। ফাজিল ও কামিল মাদরাসার ক্ষেত্রে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে যা শর্ত, আলিম মাদরাসায় জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের পদোন্নতির ক্ষেত্রেও একই শর্ত রয়েছে এবং উভয় পদের বেতন গ্রেড-০৬।

অধিদপ্তর আরও বলছে, সংশোধীত নীতিমালা জারির আগে ২০১৮ খ্রিষ্টব্দের ১৯ জুলাই জারিকৃত ‘বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ এর ১১.৪ অনুচ্ছেদে ৫:২ অনুপাতে ৮ বছর পূর্তিতে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দেওয়ার বিধান ছিল এবং বর্তমানেও সে অনুযায়ী সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দেওয়া হচ্ছে। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ (২৩ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত/পরবর্তীতে পরিমার্জিত)' এর ১৬.৪ অনুচ্ছেদের আলোকে বিভিন্ন মাদরাসা থেকে প্রভাষকরা যাদের এমপিওভুক্তির ৮ বছর অতিক্রান্ত হয়েছে তারা সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির জন্য অনলাইনে আবেদন করেন। কিন্তু এ বিষয়ে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সুনির্দষ্ট নির্দেশনা না থাকায় পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। 

অধিদপ্তর আরও বলছে, সংশোধিত এমপিও নীতিমালা জারি হওয়ার পর এর বাস্তবায়নের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে গতবছরের ৬ ডিসেম্বর কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এখনো বিষয়ে কোন নির্দেশনা পাওয়া যায়নি।

এ পরিস্থিতিতে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ (২৩ নভেম্বর, ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত/পরবর্তীতে পরিমার্জিত) এর ১১:৪ অনুচ্ছেদের আলোকে প্রভাষকদের এমপিওভুক্তির আট বছর পূর্তিতে ৫০ শতাংশ হিসেবে আলিম মাদরাসার ক্ষেত্রে জ্যেষ্ঠ প্রভাষক এবং ফাজিল ও কামিল মাদরাসার ক্ষেত্রে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হবে কি না- এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিবের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা বা সিদ্ধান্ত চেয়েছে অধিদপ্তর। 

জানা গেছে, মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে প্রভাষকদের পদোন্নতির বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে গত ৫ অক্টোবর কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠিটি সম্প্রতি প্রকাশ করেছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষা ডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

please click here to view dainikshiksha website