শ্রেণিকক্ষে আরবিতে লেকচার দিতে হবে মাদরাসা শিক্ষকদের - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

শ্রেণিকক্ষে আরবিতে লেকচার দিতে হবে মাদরাসা শিক্ষকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক |

দেশের ফাযিল, কামিল ও আলিম মাদরাসাগুলোতে শিক্ষকদের ক্লাসে আরবিতে লেকচার দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কে এম রুহুল আমিন। আরবি বিষয়ের ক্লাসগুলোতে এসব মাদরাসার শিক্ষকদের প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ মিনিট আরবিতে লেকচারদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আর শিক্ষার্থীদের আরবিতে  কথোপকথনে উৎসাহিত করতে ও আরবি রিডিং পড়া নিশ্চিত করতে মাদরাসাগুলোর প্রধানদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। দেশের সরকারি-বেসরকারি মাদরাসাগুলোতে কুরআন, হাদিস, তাফসির ও ফিকহসহ অন্যান্য আরবি বিষয়ে ‘যথাযথভাবে’ পাঠদান নিশ্চিত করতে এসব নির্দেশনাসহ মোট ১৪ দফা দিয়েছে অধিদপ্তর।

সম্প্রতি মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্দেশনাটি সব মাদরাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের পাঠিয়েছে অধিদপ্তর। গত বুধবার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কে এম রুহুল আমিন স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় দেশের সরকারি-বেসরকারি মাদরাসাগুলোতে কুরআন, হাদিস, তাফসির ও ফিকহসহ অন্যান্য আরবি বিষয়ে ‘যথাযথভাবে’ পাঠদান নিশ্চিত করতে এ ১৪ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়। 

মহাপরিচালকের দেয়া নির্দেশনায় বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের বিশুদ্ধ কুরআন তেলাওয়াত শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য প্রতিটি মাদরাসায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ক্লাসে পাঠদানের সময় আরবি বিষয়ের শিক্ষকদের কর্তৃক প্রতিদিন কমপক্ষে দশ মিনিট সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আরবিতে লেকচার বা বক্তব্য দেয়া এবং প্রয়োজনে তার অনুবাদ বলে দেয়ার ব্যবস্থা নিতে হবে। এছাড়া আরবি বিষয়ের ক্লাসে শিক্ষার্থীদের আরবিতে কথোপকথনে উৎসাহিত করতে হবে। শিক্ষার্থীদের আরবি মূল কিতাবের ইবারত পড়া (রিডিং পড়া) নিশ্চিত করতে হবে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, প্রত্যেক মাদরাসায় উপাধ্যক্ষের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি বছরের শুরুতে ক্লাস শুরুর আগেই প্রতিটি ক্লাসের জন্য একাডেমিক রুটিন প্রণয়ন করবে। বছরব্যাপী পাঠদানের জন্য প্রতিটি বিষয় অধ্যায় অনুযায়ী বিন্যাস করে পাঠপরিক্রমা তৈরি করতে হবে। কুরআন, হাদিস, তাফসির ও ফিকহসহ আরবি বিষয়ে পাঠদান পরবর্তী মাসিক মূল্যায়নের ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষক মূল বই (কিতাব) থেকে পাঠদান করছে কী-না তা নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিটি মাদ্রাসার লাইব্রেরিতে চাহিদা মোতাবেক সব শ্রেণির মূল আরবি কিতাব ও রেফারেন্স কিতাব থাকা নিশ্চিত করাসহ দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে মূল কিতাব সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। 

যেসব ক্লাসগুলোতে আরবি ব্যাকরণ পড়ানো হয়, সে ক্লাসগুলোতে আরবি ব্যাকরণ জানা দক্ষ শিক্ষকের মাধ্যমে ক্লাস গ্রহণের ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ নিজস্ব আর্থিক ব্যবস্থাপনায় অতিরিক্ত দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষক নিয়োগ করতে পারবে। ক্লাসে নোট বা গাইড নিষিদ্ধ করা এবং শিক্ষার্থীদের নোট-গাইড পড়তে নিরুৎসাহিত করতে হবে। সহশিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আরবি ভাষায় বক্তৃতা, ইবারত পাঠ, আরবি ব্যাকরণ ও আরবি প্রবন্ধ রচনা ইত্যাদি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের আরবি ভাষায় দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। মাদরাসার অধ্যক্ষের উদ্যোগে আরবি বিষয়ে শিক্ষকদের ইন-হাউস প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

এসব নির্দেশনা বাস্তবায়ন করে ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন পরবর্তী মাসের ১৫ তারিখে মধ্যে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে মাদরাসাগুলো প্রধানদের। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE   করতে ক্লিক করুন।

প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে - dainik shiksha প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে স্বজনদের না পাওয়ায় অপারেশন হচ্ছে না গণপিটুনির শিকার শিক্ষকের - dainik shiksha স্বজনদের না পাওয়ায় অপারেশন হচ্ছে না গণপিটুনির শিকার শিক্ষকের একই মাদরাসায় দেড় মাসে দুই ছাত্রীর মরদেহ - dainik shiksha একই মাদরাসায় দেড় মাসে দুই ছাত্রীর মরদেহ স্কুলে কর্মচারী নিয়োগে ৬০ লাখ টাকা ঘুষ, তদন্ত শুরু - dainik shiksha স্কুলে কর্মচারী নিয়োগে ৬০ লাখ টাকা ঘুষ, তদন্ত শুরু কোচিংয়ে পড়তে না চাওয়ায় ছাত্র ও তার বাবাকে মারধর - dainik shiksha কোচিংয়ে পড়তে না চাওয়ায় ছাত্র ও তার বাবাকে মারধর কলকাতায় ১০ম বাংলাদেশ বইমেলা শুরু - dainik shiksha কলকাতায় ১০ম বাংলাদেশ বইমেলা শুরু কর্মকর্তাদের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা, শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কতা - dainik shiksha কর্মকর্তাদের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা, শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কতা please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0046079158782959