মুক্তিপণ দিয়েও পেলেন একমাত্র ছেলের লাশ - দৈনিকশিক্ষা

মুক্তিপণ দিয়েও পেলেন একমাত্র ছেলের লাশ

দৈনিক শিক্ষাডটকম, কেরানীগঞ্জ |

দৈনিক শিক্ষাডটকম, কেরানীগঞ্জ : অপহরণের শিকার হওয়া একমাত্র ছেলে তাওহীদ হোসেনকে (১০) ফিরে পেতে মুক্তিপণ দিয়েছিলেন তিন লাখ টাকা। তবে ছেলেকে পাননি, অপহরণের ৩৬ ঘণ্টা পরে পেয়েছেন তার লাশ।

আজ সোমবার ভোরে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছন থেকে তাওহীদ হোসেনের লাশ উদ্ধার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। সে আব্দুল্লাহপুর রসুলপুর মাদরাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল। ময়না তদন্তের জন্য তার মরদেহ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তাওহীদের মা তাসলিমা আক্তার বলেন, ‘গত শনিবার রাত ৯টায় আব্দুল্লাহপুর মধ্যপাড়া থেকে আমার ছেলেকে অপহরণ করা হয়। আমার বাসার পাশে একটি মোবাইল ফেলে রেখে যায় অপহরণকারীরা। সেই মোবাইলে কল করে তারা ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।’

তিনি বলেন, ‘ছেলেকে ফিরে পেতে তিন লাখ টাকা দিতে রাজি হই। তবে তারা ১০ লাখের কমে আমার ছেলেকে ফিরিয়ে দেবে না বলে জানায়। পরে অপহরণকারী মকবুল হোসেন তিন লাখ টাকা নিয়ে মাওয়া সড়কের রাজেন্দ্রপুর ওভার ব্রিজের ওপরে একটি পিলারের নিচে রেখে যেতে বলে।’ 

অপহরণের ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় অভিযোগ করা হয়। এ ছাড়া এই ঘটনা র‍্যাব সদস্যদের জানানো হয়। ওভার ব্রিজের নিচ থেকে টাকা নেওয়ার সময় হাতেনাতে মকবুল হোসেনকে গ্রেফতার করে র‍্যাব সদস্যরা। পরে মকবুল র‍্যাবকে জানান, তাওহীদের লাশ আব্দুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে রাখা আছে। 

জানা গেছে, গ্রেফতার মকবুল হোসেনের বাড়ি কেরানীগঞ্জ মডেল থানার রোহিতপুর ইউনিয়নের লাকিরচর এলাকায়। তিনি কয়েকমাস ধরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর মধ্যপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকেন।

তাওহীদ হোসেনের মামা মো. মহসিন হোসেন বলেন, ‘আমার বোন-জামাই উজ্জ্বল হোসেন সৌদি প্রবাসী। আমার ভাগ্নে মাদরাসাশিক্ষার্থী। তার বাবা সৌদি প্রবাসী হওয়ায় তাকে টার্গেট করে অপহরণকারীরা।’ 

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহেদ ইকবাল বলেন, ‘তিন লাখ টাকা অপহরণকারীকে দিয়েও তাওহীদকে জীবিত পাওয়া গেল না। তাওহীদ হত্যার খবরে এলাকার শোকাচ্ছন্ন মানুষ ক্ষোভে ফুসছেন। অভিযুক্ত মকবুলের সঙ্গে আরও যারা জড়িত, তাদেরকে গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছে এলাকাবাসী।’

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাহাবুব রহমান বলেন, ‘অপহরণের ঘটনার পর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করেছে র‍্যাব সদস্যরা। লাশের ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।’ 

উপবৃত্তির সব অ্যাকাউন্ট নগদ-এ রূপান্তরের সময় ফের বৃদ্ধি - dainik shiksha উপবৃত্তির সব অ্যাকাউন্ট নগদ-এ রূপান্তরের সময় ফের বৃদ্ধি সাংবাদিকদের সঙ্গে আমার জন্ম-জন্মান্তরের সম্পর্ক: রাষ্ট্রপতি - dainik shiksha সাংবাদিকদের সঙ্গে আমার জন্ম-জন্মান্তরের সম্পর্ক: রাষ্ট্রপতি খাতা চ্যালেঞ্জে নতুন ফলপ্রাপ্তরাও ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত - dainik shiksha খাতা চ্যালেঞ্জে নতুন ফলপ্রাপ্তরাও ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত সর্বাত্মক কর্মবিরতির ডাক বুটেক্স শিক্ষকদের - dainik shiksha সর্বাত্মক কর্মবিরতির ডাক বুটেক্স শিক্ষকদের ‘কোটা আন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ট্রল করা হচ্ছে’ - dainik shiksha ‘কোটা আন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ট্রল করা হচ্ছে’ এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চলবে - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চলবে ভূতুড়ে স্কোরে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে গেলো ঢাবি - dainik shiksha ভূতুড়ে স্কোরে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে গেলো ঢাবি কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0050060749053955