মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব নিলেন কলেজ সভাপতি - দৈনিকশিক্ষা

মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব নিলেন কলেজ সভাপতি

দৈনিক শিক্ষাডটকম, চাটখিল (নোয়াখালী) |

দৈনিক শিক্ষাডটকম, চাটখিল (নোয়াখালী) : চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী মাহবুবা মেহেনাজের পড়াশোনা চালিয়ে নেয়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন তার বাবা-মা। সেই মাহবুবা মেহেনাজের পাশে দাঁড়িয়েছেন মেহেনাজের উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চাটখিল মহিলা ডিগ্রি কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির। মেহেনাজের এমবিবিএস পড়াকালীন যেকোনো আর্থিক সংকটে পাশে থাকার ঘোষণা দেয়ার পাশাপাশি গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে তার হাতে নগদ ২৫ হাজার টাকা শিক্ষাবৃত্তি তুলে দেন জাহাঙ্গীর কবির।

চাটখিল মহিলা ডিগ্রি কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চাটখিল উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান। তিনি তার প্রতিষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন একটিভ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে সহায়তা করেন।

এ সময় তিনি বলেন, এই কলেজ থেকে যারাই মেডিক্যালে চান্স পাবে, কলেজটির সভাপতি হিসেবে সবাইকে আমি আমার ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শিক্ষাবৃত্তি দেবো। 

জানা যায়, মাহবুবা মেহেনাজ চাটখিল উপজেলার একটি ফাজিল মাদরাসার গণিতের সহকারী শিক্ষক কামরুল হাসানের চার মেয়ের মধ্যে বড়। মেহেনাজের মা মারজাহান বেগম একজন গৃহিণী। মেহেনাজ কড়িহাটি ছালেমিয়া ফাজিল মাদরাসা থেকে ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে জিপিএ ফাইভ পেয়ে দাখিল পাস করেন। পরে স্থানীয় চাটখিল মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দে জিপিএ ফাইভসহ উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করেন। মেহেনাজ এ বছর মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলে জাতীয় মেধায় ১০৩৪তম স্থান লাভ করেছেন। তিনি তার পছন্দের চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন।

মাহবুবা মেহেনাজের বাবা কামরুল হাসান জানান, শিক্ষক হিসেবে যা বেতন পাই তা দিয়ে পরিবারের সবাইকে চালিয়ে নেয়ার পাশাপাশি তাদের পড়াশোনা চালাতে হিমশিম খেতে হয়। আমার মেয়ে টিউশনি করে নিজের খরচ চালাতো। আমার স্ত্রী ঘরের কাজের পাশাপাশি সেলাই মেশিনের কিছু কাজ করতো। সেই আয় আমাদের পারিবারিক কাজে লাগতো। মেয়ের স্বপ্ন মেডিক্যালে পড়ার। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করেছি। তবে সামনে অনেক খরচ। নতুন জায়গায় টিউশনি পেতে সময় লাগবে।

একটিভ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও চাটখিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির বলেন, মেধাবীরা সংগ্রামী হয়। আমিও সংগ্রাম করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছি। বর্তমানে ব্যবসায় সফল হয়েছি। মাহবুবা মেহেনাজের সংগ্রামের কষ্ট আমি বুঝি। আমি আগামীতেও মেহেনাজের খোঁজখবর রাখবো। তার পাশে অভিভাবক হিসেবে থাকবো।

প্রাথমিক শিক্ষকদের ডিজিটাল বদলিতে নানা সমস্যা - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষকদের ডিজিটাল বদলিতে নানা সমস্যা শিক্ষার্থীদের বাস্তব জ্ঞান অর্জন করতে হবে: এন আই খান - dainik shiksha শিক্ষার্থীদের বাস্তব জ্ঞান অর্জন করতে হবে: এন আই খান ভালো শিক্ষার্থী হলেই হবে না, আদর্শবান মানুষ হতে হবে: ভূমিমন্ত্রী - dainik shiksha ভালো শিক্ষার্থী হলেই হবে না, আদর্শবান মানুষ হতে হবে: ভূমিমন্ত্রী কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে বইমুক্ত শুক্রবারে ব্যাপক সাড়া - dainik shiksha বইমুক্ত শুক্রবারে ব্যাপক সাড়া নববর্ষ উদযাপনে সবার সহযোগিতা চাইলেন ঢাবি উপাচার্য - dainik shiksha নববর্ষ উদযাপনে সবার সহযোগিতা চাইলেন ঢাবি উপাচার্য please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0040090084075928