মোদি সফরের বিরোধিতা করে চালানো তাণ্ডবে হেফাজতের সঙ্গে জামায়াতও - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

মোদি সফরের বিরোধিতা করে চালানো তাণ্ডবে হেফাজতের সঙ্গে জামায়াতও

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের বিরোধিতা করে চালানো তাণ্ডবে হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে ছিলেন জামায়াতের নেতাকর্মীরাও। উসকানি ছড়িয়ে কর্মসূচিতে মিশে জামায়াতের কর্মীরা হামলার পুরোভাগে চলে আসেন। কয়েকটি ঘটনায় একইভাবে বিএনপির কিছু নেতাকর্মীর সম্পৃক্ততাও মিলেছে। হেফাজত নেতারা সরাসরি হামলায় কম অংশ নিলেও বেশির ভাগ ঘটনার সূচনা তাঁরাই করেছেন। গত ২৫ মার্চ থেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি, ২৮ মার্চ হরতাল এবং গত শনিবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় হেফাজত নেতা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার জেরে নাশকতার তদন্তে এমনই তথ্য পেয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৬ মার্চ) কালের কণ্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনটি লিখেছেন এস এম আজাদ।

প্রতিবেদনে আরও জানা যায়, গতকাল সোমবার পর্যন্ত ১২ জেলায় দায়ের করা ৬৭টি মামলার ব্যাপারে পুলিশ জানিয়েছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হামলায় কয়েকজন জামায়াত নেতা এবং তাঁদের পরিচালিত কোচিং সেন্টারের ছাত্রদের জড়িত থাকার তথ্য মিলেছে। রাজধানীর বায়তুল মোকাররম ও নারায়ণগঞ্জের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে জামায়াত ও বিএনপির কর্মীরা হেফাজত নেতাদের সঙ্গে মিশে হামলা-ভাঙচুর চালান। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ঘটনাস্থলে হেফাজতের নেতাদের দেখা যায়নি বলে মামলায় নাম দেওয়া হয়নি। তবে প্রমাণ সংগ্রহ করে হেফাজত নেতাদেরও গ্রেপ্তার করা হবে। ভিডিও ফুটেজে হামলাকারী এবং সমাবেশে থাকা নেতাদের আগে আইনের আওতায় আনা হবে বলে সূত্র জানায়।

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ গত সপ্তাহে বলেছেন, ‘যারা হামলা ও নাশকতা করেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। হামলার নির্দেশদাতাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কিছু মামলায় স্থানীয় পর্যায়ের বিএনপি নেতাকর্মী ও হেফাজতের কর্মীদের আসামি করা হলেও বেশির ভাগ মামলার আসামিই অচেনা। শুধু মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের মামলায় হেফাজতের নায়েবে আমির মধুপুর পীর মাওলানা আব্দুল হামিদের ছেলে আব্দুল্লাহ ও ওবায়দুল্লাহ কাশেমীর নাম উল্লেখ আছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৫ মার্চ থেকে নাশকতায় অন্তত ১৭ জন নিহত, সাংবাদিক, পুলিশসহ পাঁচ শতাধিক আহত এবং শত শত কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ২২টি, ঢাকায় ৯টি, নারায়ণগঞ্জে ১১টি, চট্টগ্রামে সাতটি, গাজীপুর, মুন্সীগঞ্জ, সিলেট, নরসিংদীর রায়পুরা ও হবিগঞ্জের আজমেরীগঞ্জে একটি করে মামলা হয়েছে। গত শনিবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় মামুনুল হককে কথিত দ্বিতীয় স্ত্রীসহ আটকের জেরে নাশকতার ঘটনায় কক্সবাজারের মহেশখালীতে দুটি, সোনারগাঁ ও সুনামগঞ্জের ছাতকে একটি করে মামলা হয়েছে। কর্মসূচি থেকে নাশকতার ঘটনায় ঢাকার মতিঝিল ও ওয়ারীতে আটটি মামলা হয়েছে। এ ছাড়া হরতালের সময় গাড়িতে আগুন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়ার অভিযোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিএনপির সভাপতি নিপুণ রায় চৌধুরীর বিরুদ্ধে হাজারীবাগ থানায় মামলা করে র‌্যাব। তদন্তসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, আরমান নামের কেরানীগঞ্জের এক বিএনপি নেতাকে হরতালের সময় নাশকতা চালাতে মোবাইল ফোনে নির্দেশ দেন নিপুণ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সবচেয়ে বেশি নাশকতা ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। পুলিশের একটি সূত্র জানায়, স্থানীয় পর্যায়ে যারা ঘটনার ইন্ধন দিয়েছেন, তাঁরা হলেন হেফাজত নেতা মাওলানা সাজেদুর রহমান, মুফতি মোবারক উল্লাহ, মুফতি এনামুল আহসান, জামায়াত নেতা সৈয়দ গোলাম সারোয়ার, কাজী ইয়াকুব আলী, মাওলানা মতিউর রহমান, কোচিং সেন্টারের পরিচালক মনির হোসেন, বিএনপি নেতা জহিরুল হক খোকন। এমন অন্তত অর্ধশত নেতার ব্যাপারে তদন্ত চলছে।

আমাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জানান, ২২ মামলায় এ পর্যন্ত সন্দেহভাজন ৩২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে নেতৃস্থানীয় কেউ নেই।

র‌্যাব সদর দপ্তর সূত্র জানায়, গত শনিবার রাঙামাটির বাঘাইছড়ির দুর্গম এলাকায় অভিযান চালিয়ে সৈকত হোসেন নামের এক তরুণকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১১। সৈকত গত ২৮ মার্চ হরতালের দিন নরসিংদীর ভেলানগরে ঘোড়ায় চড়ে স্লোগান দিয়ে আতঙ্ক ছড়ান। গত রবিবার রাতে ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাঙচুর করা যুবক আরমান আলিফকে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪। তাঁদের রাজনৈতিক পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চট্টগ্রামে কোনো হামলাকারীকে ছাড় দেওয়া হবে না। যারাই জড়িত, তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। এরই মধ্যে আমরা তদন্ত শুরু করেছি। অনেকেরই নাম আসছে, সেগুলো যাচাই করে দেখা হচ্ছে।’

জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মাশিউর রহমান বলেন, ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে হামলায় পুলিশ পাঁচটি, র‌্যাব একটি এবং দুই যানবহনের মালিক দুটি মামলা করেছেন। এসব মামলায় জামায়াত, বিএনপির কর্মীসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনায় হেফাজত ছাড়াও জামায়াত ও বিএনপির লোকজন ছিল বলে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।’

পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘সার্বিক পরিস্থিতিতে হেফাজতের নাশকতা নিয়ন্ত্রণ এবং ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উসকানির সুযোগ যেন তৈরি না হয়, সে দিকটি দেখা হচ্ছে। এ কারণে হেফাজতের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের মামলায় আসামি করা হয়নি। পরে অনেকে আইনের আওতায় চলে আসবেন।’

সাড়ে দশ লাখ পরিবার প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার টাকা পাবে বিকাশে - dainik shiksha সাড়ে দশ লাখ পরিবার প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার টাকা পাবে বিকাশে আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য নিবেদিত থাকবে : অর্থমন্ত্রী - dainik shiksha আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য নিবেদিত থাকবে : অর্থমন্ত্রী চাহিবামাত্র চিকিৎসকদের আইডি কার্ড দেখাতে বলেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর - dainik shiksha চাহিবামাত্র চিকিৎসকদের আইডি কার্ড দেখাতে বলেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে বাংলাদেশে কার্যক্রম চালু করতে চায় ১৪ বিদেশি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha বাংলাদেশে কার্যক্রম চালু করতে চায় ১৪ বিদেশি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচয়পত্র পাবেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা - dainik shiksha পরিচয়পত্র পাবেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা ফেসবুক লাইভে আর্থিক সহযোগিতা প্রার্থনা হাটহাজারী মাদরাসার - dainik shiksha ফেসবুক লাইভে আর্থিক সহযোগিতা প্রার্থনা হাটহাজারী মাদরাসার সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি ৫৪ হাজার শিক্ষক পদ, ৪১ লাখ আবেদন - dainik shiksha ৫৪ হাজার শিক্ষক পদ, ৪১ লাখ আবেদন লকডাউনে মানতে হবে যে সব বিধি-নিষেধ - dainik shiksha লকডাউনে মানতে হবে যে সব বিধি-নিষেধ চুয়েট-কুয়েট-রুয়েটের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা ১২ জুন, আবেদন শুরু ২৪ এপ্রিল - dainik shiksha চুয়েট-কুয়েট-রুয়েটের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা ১২ জুন, আবেদন শুরু ২৪ এপ্রিল please click here to view dainikshiksha website