রমজানে মাদরাসা বন্ধের আদেশ প্রত্যাহার দাবি - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

রমজানে মাদরাসা বন্ধের আদেশ প্রত্যাহার দাবি

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি |

রমজান মাসে মাদরাসা, মক্তব, হিফজ বিভাগ বন্ধের আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী। রোববার (১১ এপ্রিল) বিকেলে চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায় হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ পর্যায়ের এক জরুরি বৈঠকের পর সরকারের কাছে এ দাবি জানান তিনি।

বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা ও গ্রেফতারের নিন্দা জানান বাবুনগরী একইসাথে দেশে লকডাউনের নামে রমজান মাসে মাদরাসা, মকতব, হিফজ বিভাগ বন্ধের আদেশ প্রত্যাহারের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান তিনি।

বাবুনগরী আরও বলেন, কোরআন তিলাওয়াত এবং দোয়ার মাধ্যমে বালা-মুসিবত দূর হয়ে যায়। সেই হিসেবে দেশের স্বার্থে কওমি মাদরাসার কোরআন তিলাওয়াতের পরিবেশ অব্যাহত রাখার অনুমতি প্রদান করা হোক।

বাবুনগরী বলেন, আমরা সরকার সরকারের পতন চাই না। তাদের কোন অনুদান ও আমরা গ্রহণ করি না। সরকারের সাথে আমাদের কোন বিরোধ নেই।  তবে ইসলাম ও কওমি অঙ্গনের বিরুদ্ধে কোনো কোনো হটকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করলে তা কখনো আমরা মেনে নিব না।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান কার্যক্রম দেখে মনে হচ্ছে কওমিদের সাথে সরকার যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তবে আমাদের দাবিগুলো সরকার যদি মেনে না নেয় আমরা কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে পরামর্শক্রমে কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

এ সময় মামুনুল হকের রিসোর্ট কাণ্ডকে ‘ব্যক্তিগত’ বিষয় বলে মন্তব্য করেন বাবুনগরী। তার অব্যাহতির বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাবুনগরী বলেন, আজকের বৈঠকে কাউকে বহিষ্কার বা অব্যাহতির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এ বিষয়ে আজকের সভায় কোনো আলোচনা হয়নি। এছাড়া আগামী ২৯ মে হাটহাজারী মাদরাসায় ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলন হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান তিনি।

এর আগে দুপুর ১২টায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ নেতাদের এ বৈঠক শুরু হয়, যা চলে বিকাল ৩টা পর্যন্ত। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী। এতে হাতেগোনা হেফাজতের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে - dainik shiksha দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ - dainik shiksha ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website