লটারিতে বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তির ‘সুযোগ’ পেল ৩ ছেলে শিক্ষার্থী, নানা প্রশ্ন - ভর্তি - দৈনিকশিক্ষা

লটারিতে বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তির ‘সুযোগ’ পেল ৩ ছেলে শিক্ষার্থী, নানা প্রশ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক |

করোনার কারণে এ বছর দেশের সরকারি বিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হচ্ছে লটারিতে। সোমবার (১১ জানুয়ারি) অনলাইনে ভর্তির ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এতে ময়মনসিংহের একটি বালিকা বিদ্যালয়ের ভর্তির ‘সুযোগ’ পেয়েছে তিন ছেলে শিক্ষার্থী। বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, অভিভাবকদের ভুলেই এই কাণ্ড।

ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। প্রকাশিত ফলাফলের তালিকায় দেখা গেছে, সেখানে নাম এসেছে তিন ছেলে শিক্ষার্থীর।

তবে, ফারাবি ইসলাম নামের একজনকে ছেলে হিসেবে প্রচার করলেও বাস্তবে তিনি মেয়ে। 

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। কেউ কেউ রসিকতা করতেও ছাড়ছেন না।

বিদ্যাময়ী বালিকা বিদ্যালয়ে ‘ভর্তির সুযোগ’ পাওয়া তিন ছেলে শিক্ষার্থী হলো- ফায়াজ জাহাঙ্গীর ইশমাম, মো. জোবায়েরুল হাসান খান ও ফারাবি ইসলাম। চতুর্থ শ্রেণিতে মর্নিং শিফটের ভর্তি তালিকায় এসেছে তাদের নাম।

এ বিষয়ে আলী ইউসুফ নামে ময়মনসিংহের এক সমাজ সেবক ফেসবুকে লিখেছেন, ‘বিদ্যাময়ীতে যে ছেলে চান্স পেয়েছে তার ভর্তি নিশ্চিত করতে হবে। লটারি তাকে মেয়েদের সঙ্গে পড়ার সুযোগ করে দিয়েছে।’

সাদিয়া জামান নামে একজন লিখেছেন, ‘কপাইল্লা বাজানতো একখান না, তিনখান পাইলাম। হ্যাজাক জ্বালায়া খুঁজলে মনে হয় আরও পাওয়া যাবে। ২৭৭ জন বোনের তিনটা মাত্র ভাই। আজ লটারি ছিলো বলেই এভাবে ভাই বোন মিলেমিশে বিদ্যাময়ী গার্লস স্কুলে পড়ার সুযোগ পেলো।’

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার বলেন, ‘ওই তিন ছেলে শিক্ষার্থীকে ভর্তি নেয়া হবে কি না সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এখানে আমাদের বলার কিছু নেই।’

কিভাবে বালিকা বিদ্যালয়ে তিনজন ছেলে ভর্তির সুযোগ পেল, এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘অভিভাবকদের ভুলের কারণে এমন হয়েছে। কারণ, ভর্তির ফরমে ৫ টি বিদ্যালয়ের নাম থাকে। ওই পাঁচটি বিদ্যালয়ের যেকোনো বিদ্যালয় অভিভাবকরা সিলেক্ট করেন। এখানে হয়ত ভুলে তারা বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সিলেক্ট করেছিল। যে কারণে লটারিতে বালিকা বিদ্যালয়ে তারা ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।’

অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক - dainik shiksha উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করোনায় শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখতে আলোচনায় বসছেন দুই মন্ত্রণালয়ের কর্তারা - dainik shiksha করোনায় শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখতে আলোচনায় বসছেন দুই মন্ত্রণালয়ের কর্তারা পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন - dainik shiksha পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত - dainik shiksha শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত স্কুল খোলার পক্ষে ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী - dainik shiksha স্কুল খোলার পক্ষে ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসে অংশ নেয়নি ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী - dainik shiksha অনলাইন ক্লাসে অংশ নেয়নি ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী ফেব্রুয়ারি থেকে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরুর পরিকল্পনা - dainik shiksha ফেব্রুয়ারি থেকে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরুর পরিকল্পনা পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে তিনটি বিল সংসদে উত্থাপিত - dainik shiksha পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে তিনটি বিল সংসদে উত্থাপিত তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি - dainik shiksha তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত please click here to view dainikshiksha website