শিক্ষকদের ‘ছাগল দ্য গ্রেট’ বললেন শিক্ষা কর্মকর্তা - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষকদের ‘ছাগল দ্য গ্রেট’ বললেন শিক্ষা কর্মকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

‘শিক্ষকরা ছাগল দ্যা গ্রেট’ বলে মন্তব্য করেছেন মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার চলতি দায়িত্বে থাকা মোফাজ্জেল হোসেন। এমন অপমানজনক কথা বলায় শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ উপজেলার শিক্ষকরা। শিক্ষক সমাজকে অপমান করা শিক্ষা কর্মকর্তাকে কোনো সহযোগিতা করবেন না তারা। মোফাজ্জেল হোসেনের বিরুদ্ধে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে অভিযোগ করেছেন শিক্ষকরা। শিক্ষা অধিদপ্তরের বদলি দালালদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মাদারীপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার চলতি দায়িত্বে থাকা খন্দকার মো. মাকসুদুর রহমানের সাথে সমঝোতার মাধ্যমে আবেদন করে বদলি হয়েছেন মোফাজ্জেল হোসেন। গত রোববার শিক্ষা কর্মকর্তার চলতি দায়িত্বে থাকা সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মেফাজ্জেল হোসেনকে মাদারীপুর সদর উপজেলায় বদলি করা হয়। 

শিক্ষকরা দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, বিভিন্ন কাজে শিক্ষকরা এই কর্মকর্তারা কাছে গেলে তিনি তাদের দীর্ঘ সময় বসিয়ে রাখেন, নানাভাবে হায়রানি করেন। শিক্ষকদের সামনেই তিনি মন্তব্য করেন, ‘শিবচরের শিক্ষকরা ছাগল দ্য গ্রেট’। শিক্ষকদের ‘ছাগল দ্য গ্রেট বলা’ শিক্ষা কর্মকর্তাকে আবেদনের প্রেক্ষিতে বদলি করায় ক্ষুব্ধ উপজেলার শিক্ষকরা। তারা বলছেন, শিক্ষা কর্মকর্তার শাস্তি না হলে তারা রাজপথে নামবেন।  

শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, মোফাজ্জেল হোসেনের বিরুদ্ধে উপজেলার ৬১জন প্রতিষ্ঠান প্রধান স্বাক্ষর করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। গত রোববার মহাপরিচালকের দপ্তর এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে অধিদপ্তরের প্রশাসন শাখাকে শিক্ষকদের অভিযোগটি পাঠিয়েছেন। 

মহাপরিচালকের কাছে অভিযোগ করার বিষয়টি দৈনিক আমাদের বার্তাকে নিশ্চিত করেছেন শিবচর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ সামসুল হক। তিনি বলেন, শিক্ষকদের নানাবিধ অপমানজনক কথা বলেন শিক্ষা কর্মকর্তা মেফাজ্জেল হোসেন। আবার ঘুষ নিয়ে কাজ করেন।  

শিক্ষকদের অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ২১ জুন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রিজাইডিং অফিসার পদে নিয়োগ পান ভদ্রাসন জি সি একাডেমির সহকারী শিক্ষক রোকসানা আক্তার। কিন্তু তিনি শারীরিক অসুস্থতার কারণে ওই দায়িত্ব থেকে নিজের নাম কেটে অন্য শিক্ষককে অন্তর্ভুক্ত করতে গত ১৬ জুন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার সাথে দেখা করতে যান। এসময় শিক্ষা কর্মকর্তার চলতি দায়িত্বে থাকা মোফাজ্জেল হোসেন অশ্লীল, অসম্মানজনক কথাবার্তা বলেন। এক পর্যায়ে শিক্ষা অফিসার বলেন, ‘শিবচরের শিক্ষকরা ছাগল দ্য গ্রেট’। পরে রোকসানা আক্তারকে ৪ ঘণ্টা বসিয়ে রেখে এক পর্যায়ে ৫০০ টাকা ঘুষ নিয়ে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। 

শিবচর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ সামসুল হক দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, ‘শিক্ষা কর্মকর্তা শিক্ষকদের অপমান করায় আমরা প্রতিবাদ করেছি। তিনি ইউনিক আইডির জন্য আমাদের প্রশিক্ষণে ডেকেছিলেন, আমরা ওইখানে গিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছি। তার প্রশিক্ষণ বয়কট করেছি। আমরা শিক্ষকদের অপমান করা শিক্ষা কর্মকর্তার শাস্তি চাই। তা না হলে আমরা রাজপথে নামবো।’

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে দৈনিক আমাদের বার্তার পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় মোফাজ্জেল হোসেনের সাথে। তিনি দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় একটু ভুল বোঝাবোঝি হয়েছিল, যা উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউএনও স্যার মীমাংসা করে দিয়েছেন। কিন্তু এখন কারা আবার অভিযোগ দিলো বুঝলাম না।’ 

শিক্ষকদের বেতন বাড়ানোর দাবিতে পার্লামেন্টে শিক্ষার্থীরা - dainik shiksha শিক্ষকদের বেতন বাড়ানোর দাবিতে পার্লামেন্টে শিক্ষার্থীরা স্কুল-কলেজে এ মুহূর্তে ক্লাস বাড়ানোর সুযোগ নেই : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha স্কুল-কলেজে এ মুহূর্তে ক্লাস বাড়ানোর সুযোগ নেই : শিক্ষামন্ত্রী নতুন বছরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুরোদমে ক্লাস : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha নতুন বছরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুরোদমে ক্লাস : শিক্ষামন্ত্রী পীরগঞ্জে হামলা : র‍্যাবের হাতে আটক সৈকত ছাত্রলীগ নেতা - dainik shiksha পীরগঞ্জে হামলা : র‍্যাবের হাতে আটক সৈকত ছাত্রলীগ নেতা ছাত্রের মাকে পেটালেন শিক্ষক - dainik shiksha ছাত্রের মাকে পেটালেন শিক্ষক ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল, শিক্ষক কারাগারে - dainik shiksha ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল, শিক্ষক কারাগারে দুকুল হারালেন শিক্ষক আবু হানিফ - dainik shiksha দুকুল হারালেন শিক্ষক আবু হানিফ ‘শিক্ষকরা দক্ষ হলেই শিক্ষার্থীদের দক্ষতাভিত্তিক শিক্ষা দিতে পারবেন’ - dainik shiksha ‘শিক্ষকরা দক্ষ হলেই শিক্ষার্থীদের দক্ষতাভিত্তিক শিক্ষা দিতে পারবেন’ please click here to view dainikshiksha website