শিক্ষক সমিতির বেদখল জমিতে হাসপাতাল নির্মাণের দাবি - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষক সমিতির বেদখল জমিতে হাসপাতাল নির্মাণের দাবি

দৈনিক শিক্ষাডটকম ডেস্ক |

দৈনিক শিক্ষাডটকম ডেস্ক : বেদখল হওয়া প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির জমি উদ্ধার করে শিক্ষক কল্যাণ ট্রাস্টের আওতায় এনে সেখানে বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণের দাবি জানিয়েছে ‘শিক্ষক সমিতি সম্পদ সংরক্ষণ কমিটি’। সোমবার এই দাবিতে তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি স্মারকলিপি দিয়েছে বলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায় সংগঠনটি।

লিখিত বক্তব্যে সংগঠনটি জানায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক কল্যাণ ট্রাস্ট ও মিরপুর ১৩ নম্বর প্রাথমিক শিক্ষক ভবনের নামে দশ কাঠা জমি বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির অর্জন। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক কল্যাণ ট্রাস্টের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে ২৫ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন। বর্তমানে কল্যাণ ট্রাস্টে জমা টাকা প্রায় ৪০ কোটি। বিপুল পরিমাণ টাকা জমা থাকার পরেও ৯৫ দশমিক প্রাথমিক শিক্ষক, ট্রাস্টের সদস্য হয়নি বিধায় এসব সুযোগ-সুবিধা থেকে তারা বঞ্চিত। 

অপরদিকে বিগত বিএনপি সরকারের আমলে প্রাথমিক শিক্ষক ভবন ভেঙে অবৈধ দখলদারদের দোকান দিয়ে ব্যবসা করার সুযোগ দিয়ে আসছে। বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির এ অর্জন দু‘টো সব প্রাথমিক শিক্ষকদের সম্পদ। এ সম্পদের সঠিক ও যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে ১৭ ফেব্রুয়ারি সমিতির সাবেক ও বর্তমান নেতৃত্বে সমন্বয়ে প্রাথমিক শিক্ষক সম্পদ সংরক্ষণ কমিটি গঠন করা হয়েছে।  

কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ট্রাস্ট সব শিক্ষকের কল্যাণে আনার জন্য ট্রাস্টের আইন ২০২৩- এর কতিপয় সংশোধনী ও প্রাথমিক শিক্ষক ভবনের অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করে এই ভূমি কল্যাণ ট্রাস্টের আওয়াত প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণের জন্য সুদৃষ্টি কামনা করছি।

স্মারকলিপি দেয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সম্পদ সংরক্ষণ কমিটির আহবায়ক মো. সিদ্দিকুর রহমান, যুগ্ম আহবায়ক এম, এ ছিদ্দিক মিয়া, মো. সেলিম শাহনেওয়াজ, সদস্য সচিব মো. সেলিম হাওলাদার, সদস্য সুবল চন্দ্র পাল, মনোয়ারা বেগম প্রমুখ।

 

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়লো - dainik shiksha এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়লো সিস্টেম এনালিস্ট চুরি করেন ৫ হাজার পিস বিশেষ কাগজ - dainik shiksha সিস্টেম এনালিস্ট চুরি করেন ৫ হাজার পিস বিশেষ কাগজ আসন ফাঁকা ৮৭ শতাংশ কলেজেই - dainik shiksha আসন ফাঁকা ৮৭ শতাংশ কলেজেই স্কুল ছুটি দিয়ে প্রার্থীর নির্বাচনী সমাবেশ - dainik shiksha স্কুল ছুটি দিয়ে প্রার্থীর নির্বাচনী সমাবেশ প্রশিক্ষণ ভাতা পেতে ঘুষ, ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা - dainik shiksha প্রশিক্ষণ ভাতা পেতে ঘুষ, ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা শিক্ষকদের সর্বজনীন পেনশনের আওতায় আনার আলোচনা - dainik shiksha শিক্ষকদের সর্বজনীন পেনশনের আওতায় আনার আলোচনা কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.032792806625366