নকল ধরার যন্ত্র ‘সুরক্ষা’ ব্যবহারে সফলতার দাবি - দৈনিকশিক্ষা

নকল ধরার যন্ত্র ‘সুরক্ষা’ ব্যবহারে সফলতার দাবি

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক |

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ পরীক্ষায় ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে জালিয়াতি রোধে ‘সুরক্ষা’ নামের নতুন যন্ত্র বানিয়েছে বুয়েট। এবার সেই সুরক্ষা যন্ত্র ব্যবহারে অনেকটা সফলতা এসেছে। শুক্রবার ৩য় ধাপে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় সুরক্ষা ডিভাইসের ব্যবহারে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে কোথাও কোথাও জালিয়াতি করে পরীক্ষা দেয়ার চেষ্টা করার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু পরীক্ষার সামগ্রিক চিত্র ভালো।

শুক্রবার সহকারী শিক্ষক নিয়োগে পরীক্ষার ৩য় ও শেষ ধাপের লিখিত পরীক্ষা (ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগ-৩টি পার্বত্য জেলা ব্যতীত) অনুষ্ঠিত হয়। এ পর্বের পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২ শত ৯৩ জন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) জানিয়েছে, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও পরীক্ষক দিয়ে জালিয়াতি বন্ধ করতে পারছিলেন না তারা। পরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় ‘সুরক্ষা’ নামে এ যন্ত্রটি পরীক্ষায় জালিয়াতির ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহারকারীকে চিহ্নিত করবে। পরীক্ষার হলে কোনো পরীক্ষার্থীর কানে বা অন্যকোনো অঙ্গে কোনো ডিজিটাল ডিভাইস থাকলে বুয়েট উদ্ভাবিত যন্ত্রে একটি লাইট জ্বলে উঠবে এবং শব্দ সংকেত বেজে উঠবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ আহাম্মদ জানান, ১ম ধাপের পরীক্ষায় কিছু ক্ষেত্রে অসদুপায় অবলম্বনের চেষ্টা নজরে আসায় মন্ত্রণালয় এ ধরনের অপপ্রয়াস রোধককল্পে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করে। ফলে ২য় ধাপের পরীক্ষায় এ ধরণের অভিযোগ খুব স্বল্প পরিমাণে এসেছে। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় এ ধরনের অভিযোগ যাতে না ওঠে, সেজন্য কার্যকর পন্থা খুঁজে বের করতে বুয়েটের আইআইসিটি বিভাগের অধ্যাপক এস এম লুত্ফুল কবিরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। বুয়েট ইনোভেশন টিম স্বল্পসময়ে ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে অসদুপায় অবলম্বন সনাক্তকরণে সহজ ও কার্যকর সিস্টেম উদ্ভাবন করে। এতে মন্ত্রণালয় আর্থিক সহযোগিতা করে।

প্রাথমিক শিক্ষা সচিব বলেন, সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার এ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় এ ধরনের সিস্টেম চালু করা গেলে ডিভাইসমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণ সম্ভব হবে। তখন কেউ পরীক্ষা নিয়ে কোনো অভিযোগ তোলার সুযোগ পাবেন না।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (২৯ মার্চ) সহকারী শিক্ষক নিয়োগে পরীক্ষা-২০২৩ এর ৩য় ও শেষ ধাপের লিখিত পরীক্ষা (ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগ- ৩টি পার্বত্য জেলা ব্যতীত) অনুষ্ঠিত হয়। এ পর্বের পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২ শত ৯৩ জন।

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়লো - dainik shiksha এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়লো সিস্টেম এনালিস্ট চুরি করেন ৫ হাজার পিস বিশেষ কাগজ - dainik shiksha সিস্টেম এনালিস্ট চুরি করেন ৫ হাজার পিস বিশেষ কাগজ আসন ফাঁকা ৮৭ শতাংশ কলেজেই - dainik shiksha আসন ফাঁকা ৮৭ শতাংশ কলেজেই স্কুল ছুটি দিয়ে প্রার্থীর নির্বাচনী সমাবেশ - dainik shiksha স্কুল ছুটি দিয়ে প্রার্থীর নির্বাচনী সমাবেশ প্রশিক্ষণ ভাতা পেতে ঘুষ, ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা - dainik shiksha প্রশিক্ষণ ভাতা পেতে ঘুষ, ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা শিক্ষকদের সর্বজনীন পেনশনের আওতায় আনার আলোচনা - dainik shiksha শিক্ষকদের সর্বজনীন পেনশনের আওতায় আনার আলোচনা কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0075550079345703