শিক্ষক নিয়োগ : পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম গিয়েছে পাঁচ বিভাগে - চাকরির খবর - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষক নিয়োগ : পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম গিয়েছে পাঁচ বিভাগে

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক পদে সুপারিশ পাওয়া প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য ফরম বিভাগে-বিভাগে পাঠানো হচ্ছে। এনটিআরসিএ কার্যালয় থেকেই ফরমগুলো বিভিন্ন বিভাগে পাঠাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যে পাঁচটি বিভাগের ফরম পাঠানো হয়েছে। এখন চট্টগ্রাম বিভাগের প্রার্থীদের ফরম প্রক্রিয়া চলছে। আর রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের ফরম পাঠানো এখনো শুরু হয়নি। 

আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ভি রোল ফরম বিভাগে বিভাগে পাঠানো হলে দ্রুতই প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশনের কাজ শুরু হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা। আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, কাজ চলছে। ফরম বিভাগে-বিভাগে পাঠানো শেষ হওয়ার পর পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হবে। তবে, কবে থেকে পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হবে সে বিষয়ে সুস্পষ্টভাবে কোন মন্তব্য করেননি কর্মকর্তরা।

রোববার দুপুরে এনটিআরসিএ কার্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে ফরম প্রক্রিয়াকরণে ব্যস্ত সময় পার করছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। এনটিআরসিএ তাদের কাছে ফরম বুঝিয়ে দিলেও তারা এ কার্যালয় থেকেই বিভাগে-বিভাগে সিআইডি ও পুলিশকে পাঠাচ্ছেন। এ কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তাদের কাছে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখন তারা চট্টগ্রাম বিভাগের প্রার্থীদের ফরম প্রক্রিয়া করছেন। প্রার্থীদের পাঠানো পাঁচ কপি ফরম আলাদা আলাদা করে সিআইডি ও পুলিশকে পাঠানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে ঢাকা, সিলেট, ময়মনসিংহ, রংপুর, বরিশাল বিভাগের প্রার্থীদের ফরম পাঠানো হয়েছে। আর খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের প্রার্থীদের ফরম প্রক্রিয়ার কাজ এখনো শুরু হয়নি।  

জানা গেছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের নিরাপত্তা শাখা পুলিশ ভেরিফিকেশনের কাজটি করছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নিরাপত্তা-৩ শাখার উপসচিব সাগরিকা নাসরিন রোববার সন্ধ্যায় দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। এখনো সব প্রার্থীর ফরম পাঠানো হয়নি। আমরা কাজ করছি। যে যে বিভাগের ফরমের কাজ শেষ হচ্ছে সেগুলো আমরা পাঠিয়ে দিচ্ছি। 

কবে নাগাদ শিক্ষক পদে সুপারিশপ্রাপ্তদের পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হবে জানতে চাইলে তিনি আরও জানান, আমরা কাজ করছি। কবে পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হবে সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারছি না। তবে, আমার চেষ্টা করছি দ্রুত কাজ শেষ করার। 

এদিকে এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে আমরা ফরম বুঝিয়ে দিয়েছি। কিন্তু তাদের খালি জায়গা না থাকায় তারা আমাদের কার্যালয় থেকেই ফরমগুলো বিভাগে বিভাগে পাঠাচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বিভাগের ফরম পাঠানো হয়েছে।

কবে নাগাদ প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হবে জানতে চাইলে এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি কর্মকর্তারা। 

জানা গেছে, শিক্ষক পদে নতুন সুপারিশ পাওয়া প্রায় ৬ হাজার প্রার্থী পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য ফরম পূরণ করে পাঠাননি। ৩৮ হাজার ২৮৬ জন নিবন্ধিত প্রার্থীর ফরম পূরণ করে পাঠানোর নির্দেশনা দেওয়া হলেও ৬ হাজার প্রার্থীর ফরম পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা। ৩২ হাজার ২৮৩ জন প্রার্থী ফরম পাঠিয়েছে এনটিআরসিএতে। 

এদিকে নিয়োগ সুপারিশের জন্য নির্বাচিত হওয়ার তিনমাস পরেও চূড়ান্ত সুপারিশ না পেয়ে হতাশ প্রার্থীরা। তারা দ্রুত শিক্ষক পদে যোগদান করার দাবি জানিয়েছেন। চাকরি পাওয়ার পরেও যোগদানে অহেতুক দেরি হওয়ায় অনেক প্রার্থীই হতাশ। তারা বলছেন, দ্রুত যোগদানের ব্যবস্থা করা হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোয় শিক্ষকসংকট কিছুটা কমবে। তারা যোগাদানের পর পুলিশ ভেরিফিকেশন করারও দাবি জানিয়েছেন। 

প্রার্থীরা বলছেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে ভেরিফিকেশন রিপোর্ট ছাড়াই কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে প্রথম শ্রেণির নন ক্যাডার ইন্সট্রাক্টর (টেক) পদে ২৭৯জন এবং টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে ইন্সট্রাক্টর (নন-টেক) পদে ৫৬৬ জনকে গেজেট জারি করে পদায়ন করা হয়েছে। এ প্রার্থীরা পিএসসির মাধ্যমে সুপারিশ পেয়েছিলেন। তাদের মত এনটিআরসিএর মাধ্যমে প্রাথমিক সুপারিশ পাওয়া প্রার্থীদেরও যোগদানের পর পুলিশ ভেরিফিকেশন করার দাবি জানিয়েছেন। 

করোনায় দেড় বছরের বেশি সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের ক্ষতি হয়েছে সবচেয়ে বেশি। স্কুল খোলার পর শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পোষাতে দ্রুত শিক্ষক নিয়োগের ব্যবস্থা করেছিল সরকার। আবেদন গ্রহণের পর প্রার্থীরা গত ১৫ জুলাই প্রাথমিক সুপারিশও পেয়েছেন ৩৮ হাজার ২৮৬ জন প্রার্থী। কিন্তু শিক্ষক পদে যোগদানের আগে প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ ও প্রার্থীরা। কিন্তু এ জন্য অনেক সময় লেগে যাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে শিক্ষক পদে সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের দ্রুত যোগদান করানোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

শিক্ষক নিয়োগ : ৩৪ হাজার প্রার্থীর সুপারিশপত্র প্রকাশ - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগ : ৩৪ হাজার প্রার্থীর সুপারিশপত্র প্রকাশ শাবিপ্রবি ভালো না থাকার নেপথ্য কাহিনী শুনুন ড. জাফর ইকবালের মুখে - dainik shiksha শাবিপ্রবি ভালো না থাকার নেপথ্য কাহিনী শুনুন ড. জাফর ইকবালের মুখে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত ফেল থেকে জিপিএ-৫ পেলেন ৩৫ শিক্ষার্থী - dainik shiksha ফেল থেকে জিপিএ-৫ পেলেন ৩৫ শিক্ষার্থী ভিসির পদত্যাগ করা উচিত : এন আই খান - dainik shiksha ভিসির পদত্যাগ করা উচিত : এন আই খান করোনারোধে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ৫ জরুরি নির্দেশনা - dainik shiksha করোনারোধে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ৫ জরুরি নির্দেশনা ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে please click here to view dainikshiksha website