শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেলেন আরো ৭১৩ প্রার্থী - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেলেন আরো ৭১৩ প্রার্থী

দৈনিকশিক্ষা প্রতিবেদক |

দৈনিকশিক্ষা প্রতিবেদক: বিভিন্ন এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক পদে নিয়োগের চূড়ান্ত সুপারিশ পেয়েছেন আরো ৭১৩ জন প্রার্থী। তারা সবাই চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করেছিলেন। তাদের মধ্যে বিভিন্ন মাদরাসায় সহকারী মৌলভী পদে নিয়োগ সুপারিশ পেয়েছেন ৬২২ জন। আর অন্যান্য ৯১ জন চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করে নির্বাচিত হলেও বিভিন্ন কারণে প্রথম দফায় নিয়োগের সুপারিশ পাননি। অবশেষে তাদের শিক্ষক পদে নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশ করলো বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

মঙ্গলবার রাত আটটার কিছুক্ষণ পর প্রার্থীদের চূড়ান্ত সুপারিশ করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের এসএমএস পাঠিয়ে বিষয়টি জানিয়েছে এনটিআরসিএকে কারিগরি সহায়তা দেয়া প্রতিষ্ঠান এনটিআরসিএ। এনটিআরসিএর একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এদিন রাতে দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ৭১৩ জন প্রার্থীকে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ করা হচ্ছে। এদের মধ্যে ৬২২ জন সহকারী মৌলভী পদে নিয়োগ সুপারিশ পাচ্ছেন। তাদের মধ্যে বেশিরভাগ ফাজিলে তৃতীয় বিভাগ থাকার চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে চূড়ান্ত সুপারিশের সময় সুপারিশ পত্র পাননি। তৃতীয় বিভাগ ছাড়াও অন্যান্য জটিলতায় প্রথমে সুপারিশ না পাওয়া কয়েকজন প্রার্থীও সুপারিশ পাননি। আর বাকি ৯১ জন প্রার্থী নানা জটিলতার কারণে প্রথমে সুপারিশ পাননি। তাদের চূড়ান্ত সুপারিশ করা হলো। 

এর কিছুক্ষণ পর এনটিআরসিএ থেকে প্রকাশিত সদস্য এস এম মাসুদুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীকে এনটিআরসিএর ওয়েবসাইটের (www.ntrca.gov.bd) চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে নামক সেবা বক্সে অথবা সরাসরি নির্ধারিত (http://ngi.teletalk.com.bd) লিংকে প্রবেশ করে স্ব স্ব ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে নিয়োগ সুপারিশপত্র ডাউনলোড করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগদান করতে হবে। পুলিশ বা নিরাপত্তা ভেরিফিকেশন প্রতিবেদনে নিয়োগ সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থী অনুপযুক্ত বিবেচিত হলে এ সুপারিশপত্র তাৎক্ষনিকভাবে বাতিল বলে গণ্য হবে এবং সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রার্থীকে অব্যাহতি দেবে।

প্রার্থী যোগদানের সর্বশেষ তারিখের পরবর্তী সাত দিনের মধ্যে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের স্ব স্ব ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে টেলিটকের নির্ধারিত লিংকে (http://ngi.teletalk.com.bd) প্রবেশ করে জয়েনিং স্ট্যাটাস অপশনে ক্লিক করতে হবে। আর প্রার্থী যোগদান না করলে নো ক্লিক করে যোগদান না করার কারণ উল্লেখ করতে হবে। কোনো প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনিক্যাল কারণে এসএমএস না পেলে এনটিআরসিএ ওয়েবসাইট থেকে তার প্রতিষ্ঠানে সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকা এবং সুপারিশপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের গ্রিন কার্ড দেবেন ট্রাম্প - dainik shiksha বিদেশি শিক্ষার্থীদের গ্রিন কার্ড দেবেন ট্রাম্প বেসরকারি মেডিক্যালে ভর্তি: নিশ্চায়নের এসএমএস শুরু ২৩ জুন - dainik shiksha বেসরকারি মেডিক্যালে ভর্তি: নিশ্চায়নের এসএমএস শুরু ২৩ জুন আমলাদের একাংশ দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছে - dainik shiksha আমলাদের একাংশ দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছে কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য বাতায়ন হালনাগাদ নিশ্চিতের নির্দেশ - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য বাতায়ন হালনাগাদ নিশ্চিতের নির্দেশ মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কুল খুলছে ২৬ জুন, শনিবারও ছুটি - dainik shiksha মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কুল খুলছে ২৬ জুন, শনিবারও ছুটি শিক্ষা আমাদেরকে আমলাতান্ত্রিক করছে নাকি আমলাতন্ত্রই শিক্ষাব্যবস্থা সৃষ্টি করেছে - dainik shiksha শিক্ষা আমাদেরকে আমলাতান্ত্রিক করছে নাকি আমলাতন্ত্রই শিক্ষাব্যবস্থা সৃষ্টি করেছে গাজায় ৬ লাখেরও বেশি শিশু শিক্ষা থেকে বঞ্চিত: জাতিসংঘ - dainik shiksha গাজায় ৬ লাখেরও বেশি শিশু শিক্ষা থেকে বঞ্চিত: জাতিসংঘ দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0085098743438721