শিক্ষাব্যবস্থা সরকারিকরণের দাবি সংসদে উত্থাপনের জন্য ৫ সাংসদকে চিঠি - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষাব্যবস্থা সরকারিকরণের দাবি সংসদে উত্থাপনের জন্য ৫ সাংসদকে চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আসন্ন ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে সকল এমপিওভুক্ত ও নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একসাথে সরকারিকরণের দাবি সংসদে উত্থাপনের জন্য শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতিসহ ৫ জন সংসদ সদস্যকে চিঠি পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির নেতারা। 

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. মো. আফছারুল আমিন ও কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এম এ মতিনের ন্যাম ভবনের ফ্ল্যাটে চিঠি পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলে দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানিয়েছেন সমিতির সভাপতি ও এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরামের মুখপাত্র মো. নজরুল ইসলাম রনি ও মহাসচিব মো. মেজবাহুল ইসলাম প্রিন্স। এছাড়া রাজশাহী ৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মো. এনামুল হক এবং ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. আনোয়ারুল আযীমকে একই দাবি জানিয়েছে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে সমিতির পক্ষ থেকে দৈনিক শিক্ষাডটকমকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। তবে, সাংসদরা এ চিঠি পেয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত হতে পারেনি দৈনিক শিক্ষা ডটকম।

শিক্ষক নেতারা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, বাজেট অধিবেশনে সকল এমপিওভুক্ত ও নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একসাথে সরকারিকরণের ঘোষণার দাবি সংসদে উত্থাপনের জন্য শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতিসহ ৫ জন সংসদ সদস্যকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ২০ শতাংশের পরিবর্তে সরকারি নিয়মে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ঈদ বোনাস চিকিৎসা ভাতা বাড়ি ভাড়া দিতে বাজেটে বরাদ্দ রাখার দাবি বাজেট অধিবেশন উপস্থাপনের জন্য সংসদের কাছে আবেদন রেখেছেন শিক্ষকরা। 

শিক্ষক নেতারা আরও বলেন, সরকারিকরণ এখন সময়ের দাবি। তাদের মতে, সমগ্র শিক্ষা ব্যবস্থা সরকারিকরণ হলে ছাত্র-শিক্ষকসহ দেশের আপামর জনসাধারণ এর সুফল পাবেন।

শিক্ষক নেতারা আরও দাবি করেন, এমপিওভুক্তির টাকা দিয়ে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আয় ফেরত নিয়ে সরকারিকরণ করা হলে সরকারের রাজস্বের তেমন কোন ঘাটতি হবেনা।

৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু - dainik shiksha ৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! - dainik shiksha এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ - dainik shiksha বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! - dainik shiksha ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি - dainik shiksha নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ - dainik shiksha উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ please click here to view dainikshiksha website