শিক্ষার্থীদের মনুষ্যত্ব অর্জন করতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষার্থীদের মনুষ্যত্ব অর্জন করতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী

দৈনিকশিক্ষা প্রতিবেদক |

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, মানুষ হয়ে জন্ম নিলেই হবে না। মনুষ্যত্ব অর্জন করতে হবে। 

রোববার সকালে রাজধানীর বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ স্কুল এন্ড কলেজের মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ইথিক্স এডুকেশন ফেলোশিপ পাইলট প্রোগ্রামের জাতীয় অভিযোজন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, এথিক্স এডুকেশন বর্তমান শিক্ষাক্রমের কেন্দ্রে। শিক্ষার্থীদের যেসব নৈতিক গুণাবলি ধারণ করা উচিত তা করতে পারছে কিনা দেখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, এথিক্স এডুকেশনের উদাহরণ খোঁজার জন্য দূরে যেতে হবে না। আমাদের জাতির পিতা এ বিষয়ে উদাহরণ হয়ে আছেন। মানুষের নিপীড়ন শোষণ বঞ্চনা থেকে রক্ষার জন্য লড়াই করেছেন। তিনি মানুষকে যে কথা দিয়েছেন তা কথার বাইরে কিছু করেননি। 

তিনি আরো বলেন এথিক্সের ধারণা বাইরে থেকে নেয়ার প্রয়োজন নেই। আমাদের এ ভূখণ্ডের ধারণা অনেক পুরনো। আড়াই হাজার বছর আগেও এখানে সভ্য পরিকল্পিত জীবন যাপন করত। অনেক জিনিস অনেক দিন থেকে আছে কিন্তু আমরা এর চর্চা করছি না। 

স্বরূপানন্দ গুরুসদয় দত্তের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, আজ যে সফট স্কিলের কথা বলা হয় সেসবের চর্চার কথা অনেক আগেই এঁরা করে গেছেন। 

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইউনেস্কোর বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর সুসান মারি ভিজে ও অতিরিক্ত সচিব বেলায়েত হোসেন তালুকদার। অধিদপ্তরের পরিকল্পনা শাখার  পরিচালক ড. শফিউল আজমের স্বাগত বক্তব্য দিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

ইউনেস্কোর কান্ট্রি ডিরেক্টর সুসান মারি ভিজে বলেন, বিশ্বায়নের যুগে বিশ্ব নাগরিক গড়ে তোলা জরুরি। এথিক্স এডুকেশন সে যাত্রায় সহায়ক হবে। 

সুইজারল্যান্ডের জেনেভা থেকে ভার্চুয়ালভাবে সংযুক্ত আরিগোটো ইন্টারন্যাশনালের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মারিয়া লুসিয়া উরিবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও মাধ্যমিক ও উচচশিক্ষা অধিদপ্তরকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশে এ প্রকল্প শুরু করার জন্য। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত সচিব মো. বেলায়েত হোসেন তালুকদার বলেন, শিক্ষার শুরু এথিক্স দিয়ে। সারাবিশ্বে অসিহষ্ণুতা বেড়ে গেছে তাই এই শিক্ষার প্রসার জরুরি।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, পঁচাত্তর পরবর্তীকালে দীর্ঘদিন রাষ্ট্রীয়ভাবে অনৈতিকতার চর্চার কারণে আমাদের দেশে ঐতিহ্যগতভাবে যে নৈতিকতার চর্চা হতো তা ধ্বংস করা হয়েছে। সেটা আবার ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করতে হবে। 

অনুষ্ঠানে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড, জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি ও দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও বিদেশী উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। 

জানা গেছে, জাতীয় শিক্ষাক্রমে ইথিক্স এডুকেশন বা নীতিশাস্ত্র শিক্ষার অন্তর্ভুক্তির সুপারিশ প্রণয়নের জন্য ইউনেস্কো ঢাকা অফিসের পরামর্শক্রমে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর জাপানের বেসরকারি উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা আরিগাতো ইন্টারন্যাশনালের জেনেভা অফিসের সঙ্গে ‘এথিক্স এডুকেশন ফেলোশিপ প্রোগ্রাম’ শীর্ষক একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। চুক্তি অনুসারে ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে জুলাই থেকে ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দের নভেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশের আনুষ্ঠানিক শিক্ষায় 'ইথিক্স এডুকেশন' কার্যক্রমের টেকসই বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আরিগাতো ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিত বিবেচনার জন্য দেশীয় পরামর্শ সভা, পাঁচজন শিক্ষককে বিদেশে উচ্চতর প্রশিক্ষণ দেয়া, প্রশিক্ষিত শিক্ষকদের সাহায্যে ছয় মাসব্যাপী একটি পাইলট প্রকল্প বাস্তবায়নসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কর্মশালা আয়োজনে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরকে আর্থিক অনুদান ও কারিগরি সহায়তা দেবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকম-এর যুগপূর্তির ম্যাগাজিনে লেখা আহ্বান - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকম-এর যুগপূর্তির ম্যাগাজিনে লেখা আহ্বান ৫০ প্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করেনি - dainik shiksha ৫০ প্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করেনি ১ হাজার ৩৩০ প্রতিষ্ঠানে সবাই পাস - dainik shiksha ১ হাজার ৩৩০ প্রতিষ্ঠানে সবাই পাস পৌনে দুই লাখ জিপিএ-৫ - dainik shiksha পৌনে দুই লাখ জিপিএ-৫ এইচএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে - dainik shiksha এইচএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে এইচএসসি বিএম-ভোকেশনালে পাসের হার ৯৪ শতাংশের বেশি, ৭ হাজার ১০৪ জিপিএ-৫ - dainik shiksha এইচএসসি বিএম-ভোকেশনালে পাসের হার ৯৪ শতাংশের বেশি, ৭ হাজার ১০৪ জিপিএ-৫ আলিমে পাসের হার ৯২ শতাংশের বেশি, সাড়ে ৯ হাজার জিপিএ-৫ - dainik shiksha আলিমে পাসের হার ৯২ শতাংশের বেশি, সাড়ে ৯ হাজার জিপিএ-৫ শুধু এইচএসসিতে পাসের হার ৮৪ দশমিক ৩১ শতাংশ - dainik shiksha শুধু এইচএসসিতে পাসের হার ৮৪ দশমিক ৩১ শতাংশ please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.022568941116333