শিক্ষা শুধু জ্ঞানের জায়গা নয় : সেলিনা হোসেন - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষা শুধু জ্ঞানের জায়গা নয় : সেলিনা হোসেন

নিজস্ব প্রতিবেদক |

বাংলা একাডেমির সভাপতি ও বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বলেছেন, শিক্ষা শুধু জ্ঞানের জায়গা নয়, এটা সামাজিক মূল্যবোধেরও বড় জায়গা, যে মূল্যবোধের দ্বারা আমরা মানবিক দর্শনকে প্রবলভাবে অনুভব করতে পারি। 

শুক্রবার রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির দশম  জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমরা মানুষ, ‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ এই স্লোগান নিয়ে আমরা যদি বাস না করি, তাহলে আমাদের মাঝে সাম্প্রদায়িকতা খুবই জঘন্য দিক। আমি মনে করি, এই জঘন্য দিক আমাদের বাংলাদেশের চেতনাকে নষ্ট করবে, এটা যেন অসাম্প্রদায়িক চেতনায় মর্যাদার আসনে উঠে যায়। আমাদের শিক্ষক সমিতি যদি তাদের শিক্ষার্থীদের অসাম্প্রদায়িক করে গড়ে তোলেন, তাহলে তারা এই চিন্তাটা নিজেদের মাঝে ধারণ করতে পারবে। শিক্ষকরা রাষ্ট্রকে তাদের অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে মর্যাদার আসনে আসীন করবেন। 

শিশুকালের স্মৃতিচারণ করে তিনি আরও বলেন, আমি যখন বগুড়ার লতিফপুরে প্রাইমারি স্কুলে পড়তাম, তখন একজন শিক্ষক ছিলেন, তার পা এক্সিডেন্টে ভেঙে গিয়েছিলো, ক্রাচে ভর করে আসতেন। তিনি যখন আমাদের জাতীয় সঙ্গীত গাওয়াতেন, তার নিজের দুটো কবিতার লাইন বলতেন, পাখি সব করে রব, রাতই পোহাইলো, কাননে কুসুম কলি সকলে ফুটিলো। এগুলো বলে আমাদেরকে বলতেন, তোরা চিৎকার করে করে বল, চিৎকার করে সব ছেলে মেয়েরাই বলতো। তখন তিনি পরে বলতেন, তোরা সবাই কুসুম কলি এখন, ফুটে উঠতে হবে। তোরা বড় জায়গায় ফুটে উঠবি, বড় মর্যাদার জায়গায় যাবি। যারা একটু দরিদ্র, বাবা-মা শিক্ষা দিতে পারবে না, তারা যেন মানবিকতার জায়গা থেকে বড় মানুষ হয়। তার আশেপাশে যে দিনমজুরগুলো আছে, তাদের যেন মানুষের মর্যাদায় শ্রদ্ধা করে, ভালোবাসে। তাদের যেন তাচ্ছিল্য না করে, তোরা এভাবে বড় হবি।

আমি মনে করি, আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমার সেই প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক একটি অসাধারণ দিক দিয়েছিলেন। আজকে ছিয়াত্তর বছর বয়সে এসে সেই কথাটা মনে রেখে, আমার মনে হয়েছে এটি জ্ঞানের একটি বড় জায়গা। এই জায়গাটা কখনোই ভোলার বিষয় নয়। আমাদের শেখানো উচিত সেই সব তরুণদের, শিশুদের, যারা ভবিষ্যৎ নাগরিক হিসেবে দেশের সামাজিকতাকে ধারণ করবে, রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে ধারণ করবে, কিন্তু মানবিক চেতনার জায়গা থেকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত হবে না। এটাই হবে শিক্ষার আরেকটি বড় দিক। আমরা সবাই মিলে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় থাকবো। গত বছর পূজায় মন্ডপ ভাঙা হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। এই জায়গাগুলো কেন হবে? ধর্ম যার যার, উৎসব সবার, এই চেতনাবোধে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে যাওয়ার বোধ যেন আমাদের বড় মাত্রায় নিয়ে যায় আর আমাদের শিক্ষক সমিতি যেন এই জায়গাটা ধারণ করে।  

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক মাহফুজা খানম এবং কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন। প্রধান আলোচক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. এম এম আকাশ। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. নুর মোহাম্মদ তালুকদার। সম্মেলনে সারাদেশ থেকে আসা সমিতির শিক্ষক নেতারা অংশ নেন।

চূড়ান্ত নিয়োগ সুপারিশ পেলেন পৌনে পাঁচ হাজার নতুন শিক্ষক - dainik shiksha চূড়ান্ত নিয়োগ সুপারিশ পেলেন পৌনে পাঁচ হাজার নতুন শিক্ষক চাকরি ছেড়ে পালাচ্ছেন জাল শিক্ষকরা - dainik shiksha চাকরি ছেড়ে পালাচ্ছেন জাল শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব পদে পরিবর্তন - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব পদে পরিবর্তন সভাপতির বাড়িতে মাদরাসার নিয়োগ পরীক্ষা নয় - dainik shiksha সভাপতির বাড়িতে মাদরাসার নিয়োগ পরীক্ষা নয় শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের সিরিজ জয় - dainik shiksha শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের সিরিজ জয় please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.01295804977417