সংসদ টিভির ক্লাসবঞ্চিত স্কুলগুলোর তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

সংসদ টিভির ক্লাসবঞ্চিত স্কুলগুলোর তথ্য চেয়েছে অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক |

গত ২৯ মার্চ সকাল থেকে সংসদ টিভিতে ‘আমার ঘরে আমার ক্লাস’ শিরোনামে  মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হয়েছে। প্রতিদিন বেলা এগারোটা থেকে দুপুর দুইটা ৩০ মিনিট পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস প্রচার করা হচ্ছে।  সংসদ টিভি দেখতে না পাওয়ায় এবং অনলাইনে ক্লাস করার সুযোগ না থাকায় কর্তব্যরত অনেক শিক্ষার্থী সংসদ টিভি ক্লাস থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সংসদ টিভি ক্লাস থেকে বঞ্চিত এলাকার স্কুলগুলোর তথ্য চেয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। আগামী ৭ জুনের মধ্যে এসব এলাকায় স্কুলের তথ্য অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের।

বুধবার (৩ জুন) মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এ-সংক্রান্ত চিঠি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়।

সংসদ টিভি দেখতে পাওয়া যায় না এবং অনলাইনে ক্লাস করার সুযোগ নেই এমন এলাকার তথ্য নির্ধারিত ছকে পূরণ করে আগামী ৭ জুনের মধ্যে ইমেইলে ([email protected]) অধিদপ্তরে পাঠাতে চিঠিতে বলা হয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের। জেল- উপজেলা ও স্কুলের নাম নির্ধারিত ছকে পূরণ করে শিক্ষার্থী সংখ্যা এবং অনলাইন বা সংস্কৃত ক্লাস করতে না পারার কারণ উল্লেখ করে এসব তথ্য পাঠাতে হবে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে ক্লাসের সময়ের সাথে সমন্বয় করে যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনলাইন শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে। অর্থাৎ সংসদ টেলিভিশনে যে সময়ে যে শ্রেণির ক্লাস চলে ঐ সময়ে অন্য শ্রেণির ক্লাস অথবা সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন প্রচারিত “আমার ঘরে আমার স্কুল” নামে শিক্ষা বিষয়ক কার্যক্রমের আগে বা পরে তারা শ্রেণি কার্যক্রম চালাতে পারবে, তবে এ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য শিক্ষার্থীদের নিকট হতে কোনরূপ টাকা দাবি করা যাবে না।

গত ২৯ মার্চ থেকে সংসদ টিভিতে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস সম্প্রচার করা হচ্ছে। সকাল ১১ টা  থেকে দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির মোট দশটি ক্লাস সম্প্রচার করা হবে সংসদ টিভিতে। 

করোনার বন্ধে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে টিভিতে পাঠদান চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধায়নে সে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। সহযোগিতা করছে এটুআই, ব্যানবেইসসহ অন্যান্যরা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে টিভিতে শিক্ষার্থীদের পাঠদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। দীর্ঘ ছুটিতে লাখ লাখ শিক্ষার্থীকে পড়াশোনার মধ্যে রাখার সরকারি এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা সংসদ টিভিতে এসব ক্লাস দেখতে পারবেন। এছাড়া দৈনিক শিক্ষা ডটকমের অরিজিনাল ফেসবুক পেজ এবং দৈনিক শিক্ষা ডটকমের অফিশিয়াল ফেসবুক গ্রুপে সরাসরি ক্লাস সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এটুআইয়ের ফেসবুক পেজে ক্লাস সম্প্রচার করা হবে।

টেলিভিশনে মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য পরিচালিত বিষয়ভিত্তিক ক্লাস দেখলেই কাজ শেষ নয়। টিভিতে প্রচারিত প্রতিটি ক্লাসের পর দেয়া হবে বাড়ির কাজ। আর প্রতিটি বিষয়ের আলাদা খাতায় সেই বাড়ির কাজ শেষ করতে হবে। করোনার তাণ্ডব শেষ হলে যখন স্কুল খোলা হবে তখন শিক্ষকদের সেই বাড়ির কাজের খাতা দেখাতে হবে। বাড়ির কাজের প্রাপ্ত নম্বর ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরে।

যতদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ততদিনই টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে। দীর্ঘসময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে বাসায় অবস্থান করেই ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারে সে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই সংসদ টেলিভিশনে রেকর্ড করা শিক্ষা কার্যক্রম সম্প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে - dainik shiksha এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা - dainik shiksha সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা - dainik shiksha সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন - dainik shiksha চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার - dainik shiksha শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই - dainik shiksha ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই please click here to view dainikshiksha website