সুধা রানী হাদিসের শিক্ষক পদে : এনটিআরসিএর ব্যাখ্যা - দৈনিকশিক্ষা

সুধা রানী হাদিসের শিক্ষক পদে : এনটিআরসিএর ব্যাখ্যা

সাবিহা সুমি, শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক |

সাবিহা সুমি, দৈনিক শিক্ষাডটকম: বুধবার ১৮তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম অনুসারী একজনের ইসলাম ধর্মের হাদিস বিষয়ে উত্তীর্ণ দেখানোর বিষয়টি আলোচনায় এসেছে। এর জন্য ফেসবুকে আলোচনায় অনেকেই এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষকে দায়ী করছেন।

এমতাবস্থায় দৈনিক শিক্ষার এক প্রশ্নের জবাবে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহিল আজম বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, যেহেতু একজন প্রার্থী নিজেই নিজের আবেদন সম্পন্ন করেছেন, সে ক্ষেত্রে এনটিআরসিএ কীভাবে দায়ী হতে পারে। এর জন্য প্রার্থী নিজেই দায়ী।

এদিকে দৈনিক শিক্ষাডটকমের অনুসন্ধানেও চেয়ারম্যানের দাবির সত্যতা পাওয়া গেছে, সুধা রানী নামের ওই প্রার্থীর আবেদনে ভুল থাকায় তার ফল ভুল এসেছে।  অভিজ্ঞজনরাও মনে করছেন, এনটিআরসিএ কোনোভাবেই দায়ী হতে পারে না। কারণ পুরো প্রক্রিয়াটি ডিজিটাল ও সফটওয়ারের মাধ্যমে হয়েছে। যার ফলে আবেদনকারী নিজ দায়িত্বে কম্পিউটারে যেভাবে আবেদন করেছেন ফল প্রকাশের সময় সেভাবেই এসেছে।

এর আগে এনটিআরসিএর পক্ষ থেকে বারবার আবেদনের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছিলো।

 বুধবার (১৫ মে) ১৮তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। এতে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৯৮১ জন। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিয়োগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল   SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

 
ছাত্রদলের ২৬০ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা - dainik shiksha ছাত্রদলের ২৬০ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ছাত্রলীগের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী কওমি মাদরাসার ঐতিহ্য নষ্ট করতে চান - dainik shiksha ছাত্রলীগের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী কওমি মাদরাসার ঐতিহ্য নষ্ট করতে চান ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে - dainik shiksha ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে সব সময় গাছ লাগানো আমাদের নীতি ছিলো: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha সব সময় গাছ লাগানো আমাদের নীতি ছিলো: প্রধানমন্ত্রী কখনো বিদ্যালয়ে যায়নি তিন কোটি মানুষ - dainik shiksha কখনো বিদ্যালয়ে যায়নি তিন কোটি মানুষ বিসিএস ছেড়ে নন-ক্যাডারে যোগ দিলেন কর্মকর্তা - dainik shiksha বিসিএস ছেড়ে নন-ক্যাডারে যোগ দিলেন কর্মকর্তা ১৯ জন শিক্ষক বেতন পান না ৭ মাস ধরে - dainik shiksha ১৯ জন শিক্ষক বেতন পান না ৭ মাস ধরে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0030422210693359