স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে রাস্তার নির্মাণ সামগ্রী রাখার অভিযোগ - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে রাস্তার নির্মাণ সামগ্রী রাখার অভিযোগ

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি |

পটুয়াখালীর বাউফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে রাস্তার নির্মাণ সামগ্রী রাখার  অভিযোগ উঠেছে এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। এতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। দ্বীপ এন্টারপ্রাইজ নামের ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান উপজেলার কনকদিয়া স্যার সলিমুল্লাহ স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে দিয়ে স্কুল লাগোয়া বাজার একালার চলমান সিসি রাস্তার কাজে ব্যাবহৃত মিক্সার মেশিনসহ নির্মাণ সামগ্রী রাখেছে।

ছবি : বাউফল প্রতিনিধি

কয়েকজন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানায়, কনকদিয়া বাজার এলাকায় ২৭ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ১১৯ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৫মিটার প্রস্থের সিসি রাস্তার চলমান নির্মাণ কাজ করছেন দ্বীপ এন্টারপ্রাইজ নামে এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। আর রাস্তা লাগোয়া স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে ভেতরে রাখা হয়েছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মিস্কার মেশিনসহ ওই রাস্তার কাজের যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী।

আরও পড়ুন : দৈনিক শিক্ষা পরিবারের নতুন সদস্য ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন অভিভাবক আক্ষেপ করে দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘লকডাউনে স্কুল বন্ধ। এই সুযোগে স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে দিয়ে রাস্তার নির্মাণ সামগ্রী রাখা হয়েছে। ক্লাস খোলা থাকলে ছাত্রছাত্রীরাই এভাবে তাদের প্রিয় স্কুলের ওয়াল ভাঙতে দিত না।’

অপর একজন অভিভাবক দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘কাজের সঙ্গে রাজনৈতিক প্রভাবশালী জড়িত থাকায় রাস্তাটিতে লোহার বাইনডিং, প্রস্থ, ছাদ বেইজ ও ডব্লুবিএম নির্ধারিত ব্যবধানে না থাকলেও স্থানীয় কেউ কোন কথা বলতে পারছেন না। ঠিক একইভাবে বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে নির্মাণ সামগ্রী রাখলেও কোন কথা বলতে সাহস করছেন না কেউ। এখন শুকনো মৌসুমে মালামাল রাখার জায়গার কোন অভাব নেই। স্কুল প্রতিষ্ঠানের বাউন্ডারি ভেঙে দিয়ে সেখানে মালামল রাখতে হবে এটা কেমন কথা। কোন বিবেকবান লোক এটা কি ভাবে মেনে নিবেন।

দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন

স্কুল এন্ড কলেজটির প্রধান শিক্ষক নার্গিস আক্তার দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘আমার কি করার আছে। স্কুলের কমিটি মিটিংয়ে অনুমতি দেয়া হয়েছে। নিরুপায় হয়ে মেনে নিতে হয়েছে। তবে কাজের শেষে বাউন্ডারি ঠিক করে দিবেন মর্মে সভাপতির উপস্থিতিতে ঠিকাদারের লোকজন লিখিত দিয়েছেন।’

স্কুলের সভাপতি আখিনুর বেগমের সঙ্গে দৈনিক শিক্ষাডটকমের পক্ষ থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। 
        
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। 

তবে উপজেলা সহকারি প্রকৌশলী শহীদুর রহমান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, ‘কাজ শেষে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল করে দেবে বলে লিখিত আশ্বাস দিয়েছে।’

কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে - dainik shiksha দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ - dainik shiksha ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website