স্কুলের সময়টুকু দপ্তরিদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ করে পরিপত্র জারির আহ্বান - সমিতি সংবাদ - দৈনিকশিক্ষা

স্কুলের সময়টুকু দপ্তরিদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ করে পরিপত্র জারির আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম প্রহরীদের কর্মঘণ্টা স্কুল চলার সময়টুকু নির্ধারণ করে পরিপত্র জারির আহ্বান জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক শিক্ষা গবেষণা পরিষদের নেতারা। তারা বলছেন, দপ্তরিদের কর্মঘণ্টা নিয়ে কোন সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যা না থাকায় তাদের দিয়ে সার্বক্ষণিক কাজ করানো হয়েছে। মহান মে দিবসেও তাদের কাজে যেতে হয়েছে। তাই, ক্ষোভ প্রকাশ করে স্কুলের সময়সূচি মোতাবেক দপ্তরিদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন নেতারা।

কর্মঘণ্টা নির্ধারণে ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে দপ্তরিদের সম্মেলন। ছবি : দৈনিক শিক্ষা

রোববার (২ মে) দৈনিক শিক্ষাডটকমের পাঠানো এক বিবৃতিতে এ  দাবি জানান পরিষদদের সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান ও সিনিয়র সহ সভাপতি এম এ ছিদ্দিক মিয়াসহ অন্যান্য নেতারা। 

আরও পড়ুন : দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, মহান মে দিবসেও প্রাথমিকের দপ্তরিরা সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছেন। কর্মঘন্টা কত সময়, এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন ব্যাখ্যা তাদের চাকরি বিধিতে নেই। এ অজুহাতে বহু দপ্তরিকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে। মহামান্য হাইকোর্টের রায় ও মহাপরিচালক প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে আদালতে পাঠানো লিখিত প্রতিবেদন ‘বিদ্যালয় চলাকালীন সময়’ দপ্তরিদের কর্মঘন্টা বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও দপ্তরীদের সার্বক্ষণিক ডিউটি অব্যাহত এখনও চলছে। প্রাথমিক দপ্তরীদের কর্মঘন্টার বিষয়ে আজও কোন পরিপত্র জারি না করায় সর্বোচ্চ পর্যায়ে কর্তাব্যক্তিদের মে দিবস নিয়ে মায়া কান্না দেখানো কতটা যৌক্তিক?-প্রশ্ন তোলেন নেতারা। 

তাই, ক্ষোভ প্রকাশ করে, বিদ্যালয়ের সময়সূচি মোতাবেক দপ্তরিদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করার আহ্বান জানিয়েছেন পরিষদের নেতারা। 

বিবৃতিতে আরও স্বাক্ষর করেছেন পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলার আহ্বায়ক মো. মাসুদ করিম, নির্বাহী সদস্য ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিন মোল্লা।

দৈনিক শিক্ষা পরিবারের নতুন সদস্য ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষা ডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha কঠোর বিধিনিষেধ বাড়তে পারে আরও এক সপ্তাহ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন কিন্ডারগার্টেনের ১০০ শিক্ষক বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে - dainik shiksha দুই ধরনের দুই ডোজ টিকা নিলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ - dainik shiksha ঘরে বসেই নতুন শিক্ষকদের ১০ দিনের অনলাইন প্রশিক্ষণ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website