স্কুলের সামনে অভিভাবকদের ভিড়, স্বাস্থ্যবিধি লাটে - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

স্কুলের সামনে অভিভাবকদের ভিড়, স্বাস্থ্যবিধি লাটে

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সেই চিরচেনা ভিড়, অভিভাবকদের জটলা। স্বাস্থবিধির বালাই নেই।  ৫৪৪ দিন পর প্রথম স্কুলের উচ্ছ্বাসে উৎকণ্ঠা বাড়িয়ে দিয়েছেন তাদেরই কিছু বাবা-মা কিংবা অভিভাবক। রাজধানীর ভিকারুননিসা ও সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে অভিভাবকদের বেপরোয়া দেখা গেছে। 

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে পুরান ঢাকার নামি প্রতিষ্ঠান সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে অভিভাবকদের জটলা ছিল চোখে পড়ার মতো। মুখে মাস্ক থাকলেও ছিল না সামাজিক বা শারীরিক দূরত্ব, যা করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে পারে শিশু শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সবার মধ্যেই।

পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজার এলাকায় বেশ কয়েকটি স্কুল ও কলেজ থাকায় এখানে স্বাভাবিকভাবেই ভিড় অনেকটাই বেশি। সড়কেও ছিল যানজট। 

সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে দেখা যায় ভেতরে ঢুকেছেন শিক্ষার্থীরা। অভিভাবকরা সন্তানদের স্কুলের ফটকে এগিয়ে দিচ্ছেন। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যায় ভিড়, যখন অন্য শ্রেণিগুলো স্কুলে এসে যায়।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে প্রথম শ্রেণির ক্লাস ছুটি হওয়ার পর স্কুলটির প্রধান ফটকে পা ফেলার জায়গাটুকুও ছিল না। অভিভাবকেরা তাদের ছোট ছোট মেয়েদের নিতে ফটকের ভেতরেও ঢুকে যান। এর পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ দোকান, টিউশনির জন্য কার্ড বিতরণের কারণে জটলা বেড়ে যায় আরও বেশি। এতে করে বেড়ে যায় ঝুঁকি। এ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন কেউ কেউ।

স্কুলের সামনে অভিভাবকদের জটলা। ছবি : দৈনিক শিক্ষা

প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী আফরিনার বাবা গেন্ডারিয়ার হাবিবুর রহমান বলেন, এভাবে ভিড় করে তো নিজেরাই নিজেদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিচ্ছি। তিনি বলেন, এখন স্কুলে যা নিয়ম কানুন দেখছি তাতে ভালো লাগছে। সরকার যেভাবে বলেছে সেভাবে মেনে চললে নিরাপদ। কিন্তু ভিড় করা কাম্য নয়।

প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরশির মা জলি জানান, স্কুলে প্রবেশের সময় স্বাস্থ্যবিধি ঠিকটাক মানা হয়েছে। তবে গেটে এভাবে জটলা করলে রিস্কের মধ্যে পড়ে যেতে হবে।

তবে জটলা করা অভিভাবকদের দাবি, স্কুল ছুটির পর ছোট বাচ্চাদের নিতে অভিভাবকদের তো আসতে হয়। এজন্য স্কুল কর্তৃপক্ষেরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া দরকার, যাতে ভিড় না হয়।

ভিকারুননিসার আজিমপুর শাখার সামনেও একই অবস্থা দেখা গেছে। 

স্কুলের সামনে অভিভাবকদের জটলা না করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। রোববার সকালে মতিঝিলের আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনকালে তিনি এ আহ্বান জানান। 

জাকির হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় শিক্ষার্থীরা উচ্ছ্বাসে আছে। শিক্ষার্থীরা শারীরিক দূরত্ব মেনে পাঠদানে অংশ নিচ্ছে। তারা নিজেরাই হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে এসেছে, মাস্ক পরেছে। সেসঙ্গে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের হ্যান্ড থার্মাল দিয়ে তাপমাত্রা মেপে দেখছেন।

তিনি বলেন, আজকের পরিবেশ দেখে নিজের কাছেই ভালো লাগছে, মনে হচ্ছে সেই পুরনো পরিবেশ ফিরে এসেছে।  আজ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও বন্যাকবলিত এলাকায় কিছু প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সেগুলো চালুর বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।

উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ১ হাজার ৮৮ শিক্ষক - dainik shiksha উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ১ হাজার ৮৮ শিক্ষক প্রাথমিকে শিক্ষকসহ অন্যান্য পদ ‘বাড়ছে’ - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষকসহ অন্যান্য পদ ‘বাড়ছে’ ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষাবিমা’ চার্জমুক্ত রাখার নির্দেশ - dainik shiksha ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষাবিমা’ চার্জমুক্ত রাখার নির্দেশ এমপিওভুক্ত হলেন দেড় হাজার শিক্ষক-কর্মচারী - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন দেড় হাজার শিক্ষক-কর্মচারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এখনো সংক্রমণের খবর আসেনি : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এখনো সংক্রমণের খবর আসেনি : শিক্ষামন্ত্রী স্বরাষ্টমন্ত্রীর সঙ্গে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান নেতাদের মত বিনিময় - dainik shiksha স্বরাষ্টমন্ত্রীর সঙ্গে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান নেতাদের মত বিনিময় শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী ডিসেম্বর পর্যন্ত ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ডিসেম্বর পর্যন্ত ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির তালিকা বিএড স্কেল পেলেন ৫৮ শিক্ষক - dainik shiksha বিএড স্কেল পেলেন ৫৮ শিক্ষক please click here to view dainikshiksha website