স্ত্রীকে খুন করাতে তিন লাখ টাকা দিয়েছিলেন এসপি বাবুল - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

স্ত্রীকে খুন করাতে তিন লাখ টাকা দিয়েছিলেন এসপি বাবুল

নিজস্ব প্রতিবেদক |

মাহমুদা খানম (মিতু) হত্যায় বাবুল আক্তার তিন লাখ টাকা দিয়েছিলেন আসামিদের। আদালতে দেওয়া দুই সাক্ষীর জবানবন্দি ও পিবিআইয়ের তদন্তে এ তথ্য উঠে আসে। এ ছাড়া পিবিআইয়ের দেওয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদন ও নতুন করা মামলায় লেনদেনের উল্লেখ আছে।

জানতে চাইলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, স্ত্রী হত্যার তিন দিন পর এসপি বাবুল আক্তার তাঁর ব্যবসায়িক অংশীদার সাইফুল হককে বলেন, তাঁর লাভের অংশ থেকে তাঁকে যেন তিন লাখ টাকা দেওয়া হয়। সাইফুল বিকাশের মাধ্যমে ওই টাকা গাজী আল মামুনকে পাঠান। গাজী আল মামুন ওই টাকা মুসা, ওয়াসিমসহ আসামিদের ভাগ করে দেন। তবে কাকে কত টাকা দেওয়া হয়েছে, সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।  

আরও পড়ুন :

 দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

মিতু হত্যা : প্রধান আসামী বাবুল আক্তার পাঁচ দিনের রিমান্ডে

পিবিআইয়ের তদন্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, মিতু হত্যার মামলার ভিডিও ফুটেজে বাবুল আক্তারের সোর্স এহতেশামুল হক ভোলা, কামরুল শিকদার ওরফে মুসা ছিলেন। কিন্তু ঘটনার পরপর তিনি দাবি করেছিলেন, জঙ্গিরা জড়িত। তাঁর সোর্সকে তিনি চিনলেও বিষয়টি চেপে যান। ভুলেও তিনি সাইফুল হকের মাধ্যমে হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া মুসা, ওয়াসিমসহ আসামিদের তিন লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলেননি। 

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার বাবুলের ব্যবসায়িক অংশীদার সাইফুল ও মামুন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দীনের আদালতে সাক্ষী হিসেবে জবানবন্দি দেন। সেখানে দুজনই বাবুলের নির্দেশে স্ত্রী হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের টাকা দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন

২০১৬ খ্রিষ্টাব্দের ৫ জুন ভোরে চট্টগ্রাম শহরের জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয় মাহমুদা খানম ওরফে মিতুকে।

ওই ঘটনায় বাদী হয়ে বাবুল আক্তার পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। তাতে তিনি বলেন, তাঁর জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রমের জন্য স্ত্রী আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু হয়ে থাকতে পারেন। তবে সপ্তাহ দুয়েকের মাথায় মাহমুদা হত্যার তদন্ত নতুন মোড় নেয়। অব্যাহতভাবে মাহমুদার মা–বাবা এই হত্যার জন্য বাবুল আক্তারকে দায়ী করে আসছেন।

মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের ১৭ তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের ১৭ তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল দিবস পালনের নির্দেশ - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল দিবস পালনের নির্দেশ আগামী সপ্তাহ থেকে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণিতে দুদিন ক্লাস - dainik shiksha আগামী সপ্তাহ থেকে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণিতে দুদিন ক্লাস বোর্ড চেয়ারম্যানের সঙ্গে কর্মচারীর অশালীন আচরণ, শোকজ - dainik shiksha বোর্ড চেয়ারম্যানের সঙ্গে কর্মচারীর অশালীন আচরণ, শোকজ ১৭ অক্টোবর থেকে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু - dainik shiksha ১৭ অক্টোবর থেকে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু প্রশিক্ষণ ভাতা পাচ্ছেন ২১ হাজার শিক্ষক - dainik shiksha প্রশিক্ষণ ভাতা পাচ্ছেন ২১ হাজার শিক্ষক কবে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা - dainik shiksha কবে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শিক্ষকের ‘ঠ্যাং কেটে দেওয়ার’ হুমকি প্রধান শিক্ষকের কক্ষে - dainik shiksha শিক্ষকের ‘ঠ্যাং কেটে দেওয়ার’ হুমকি প্রধান শিক্ষকের কক্ষে শ্রেণিকক্ষ দখল করে প্রধান শিক্ষকের বসবাস - dainik shiksha শ্রেণিকক্ষ দখল করে প্রধান শিক্ষকের বসবাস please click here to view dainikshiksha website