১৪ বছর বয়সেই স্নাতক - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

১৪ বছর বয়সেই স্নাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক |

মাত্র ১৪ বছর বয়সে স্নাতক সম্পন্ন করে ভারতবাসীকে তাক লাগিয়ে দিল তেলেঙ্গানার কিশোর অগস্ত্য জয়সওয়াল। সে ভারতের কনিষ্ঠতম স্নাতক। এমনটাই দাবি তেলেঙ্গানার ‘ওয়ান্ডার বয়ে’র।

সম্প্রতি ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকস্তরের পরীক্ষার ফল বেরিয়েছে। তাতেই মেস কমিউনিকেশন ও জার্নালিজমে স্নাতক ডিগ্রি পেয়েছে অগস্ত্য। মাত্র ৯ বছর বয়সে মাধ্যমিক স্তরের পরীক্ষায় পাস করেছিল সে। ১১ বছর বয়সে পাস করেছিল উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের পরীক্ষা। তাতে পেয়েছিল ৬৩ শতাংশ নম্বর। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলাতেও দক্ষ অগস্ত্য। পেশাদার টেবিল টেনিস খেলোয়াড় সে। খেলে জাতীয় স্তরে। ভালো পিয়ানো বাজাতে পারে অগস্ত্য। আবার এইটুকু বয়সেই আন্তর্জাতিক মোটিভেশনাল স্পিকার। সমস্ত দিকেই তার প্রতিভার বিকাশ ঘটেছে।

ছেলের প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অগস্ত্যর বাবা অশ্বিণী কুমার জয়সওয়াল জানান, প্রত্যেক শিশুর মধ্যেই বিশেষ গুণ থাকে। বাবা-মা যদি তাকে সঠিক পথে চালিত করেন, সেই গুণের বিকাশ ঘটতে সাহায্য করেন, তাহলে প্রত্যেক শিশুর পক্ষেই অসাধারণ কিছু করা সম্ভব। 

অগস্ত্যর মা জানান, খেলার ছলেই সমস্ত কিছু ছেলেকে শিখিয়েছেন তারা। ছোটবেলা থেকেই অগস্ত্যের কৌতূহল প্রচুর। বাস্তবসম্মত ব্যাখ্যা দিয়ে তার সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছেন বাবা-মা। প্রত্যেকটা বিষয় অগস্ত্যকে বোঝার জন্য অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। ভাষা রপ্ত করতে শিখিয়েছেন। বই পড়ার পাশাপাশি বাবা-মায়ের কাছ থেকেই সমস্ত শিক্ষা পেয়েছে বলে জানায় অগস্ত্য। মাস কমিউনিকেশন ও জার্নালিজমে স্নাতক হলেও তার স্বপ্ন ডাক্তার হওয়ার। তাই এবার এমবিবিএস ডিগ্রি পেতে চায় সে। 

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন  

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের আবেদনে ভুল সংশোধনের সুযোগ - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের আবেদনে ভুল সংশোধনের সুযোগ আসছে বছর থেকেই পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে প্রোগ্রামিং - dainik shiksha আসছে বছর থেকেই পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে প্রোগ্রামিং ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন - dainik shiksha ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস রুটিন ইবতেদায়ি ও দাখিল শিক্ষার্থীদের পঞ্চম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha ইবতেদায়ি ও দাখিল শিক্ষার্থীদের পঞ্চম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনও ইএফটিতে - dainik shiksha প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনও ইএফটিতে ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার দায়িত্ব মাদরাসা বোর্ডের - dainik shiksha ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষার দায়িত্ব মাদরাসা বোর্ডের প্রতি স্কুলের তিন শিক্ষককে করতে হবে কৈশোরকালীন পুষ্টি প্রশিক্ষণ - dainik shiksha প্রতি স্কুলের তিন শিক্ষককে করতে হবে কৈশোরকালীন পুষ্টি প্রশিক্ষণ please click here to view dainikshiksha website