ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু রাখতে বললো শিক্ষা মন্ত্রণালয় - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু রাখতে বললো শিক্ষা মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক |

স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু রাখতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেয়া প্রক্রিয়া শুরু হলেও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছিল না। ফলে ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি পাওয়া নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছিলো। এ পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে এ অনুরোধ জানিয়ে গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। 

সোমবার সন্ধ্যায় কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের মাদরাসা অনুবিভাগের সহকারী সচিব সৈয়দ আসগর আলী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু রাখতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বিভাগ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির অনুমোদনে এ চিঠি পাঠানো হয়েছে। কেবলমাত্র সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রি শুরু হয়েছে। তাই স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তি না পাওয়ার শঙ্কায় আছেন। গত ১৯ জুন স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু রাখতে বলে গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। 

শিক্ষকদের সঙ্গে কথা হলে তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানিয়েছেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রি করা হয়েছে। কিন্তু ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রি করা হয়নি। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারাও তথ্য নেননি। শিক্ষকরা বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় উপবৃত্তি চালু রাখার দাবি জানাচ্ছিলেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবকে পাঠানো চিঠিতে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ বলছে, এসডিজিতে উল্লেখ আছে সরকার জন্য শিক্ষা ও জীবনব্যাপী জ্ঞানার্জনের সুযোগের বিষয়ে বলা আছে। ২০৩০ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে অন্তর্ভুক্তিমূলক শিক্ষা এবং সবার জন্য একই ধরনের সুযোগ নিশ্চিত করা প্রয়োজন। স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেয়া না হলে এসডিজির লক্ষ্য অর্জন ব্যহত হবে। 

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, ইবতেদায়ি স্তর হচ্ছে সাধারণ শিক্ষা ব্যবস্থার প্রাথমিক স্তরের মত মাদরাসা শিক্ষা ব্যবস্থার প্রাথমিক স্তর। ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেয়াসহ পরীক্ষা গ্রহণ ও ফল প্রকাশের কাজ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাধ্যমে সম্পাদিত হয়। ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তি সুবিধা বঞ্চিত হলে এর নেতিবাচক প্রভাব সমগ্র মাদরাসা শিক্ষা ওপর পড়তে পারে। 

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ জানিয়েছে, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার সংখ্যা ৬ হাজার ৯৯৭টি।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

মাদরাসা শিক্ষকদের উৎসব ভাতার চেক ছাড় - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের উৎসব ভাতার চেক ছাড় শিক্ষক হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্র জিতু গ্রেফতার - dainik shiksha শিক্ষক হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্র জিতু গ্রেফতার শিক্ষক হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্রের বয়স উনিশের বেশি, জেডিসি পাস - dainik shiksha শিক্ষক হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্রের বয়স উনিশের বেশি, জেডিসি পাস ‘মনে হয়েছিল আত্মহত্যা করি’, বললেন লাঞ্ছিত হওয়া সেই অধ্যক্ষ - dainik shiksha ‘মনে হয়েছিল আত্মহত্যা করি’, বললেন লাঞ্ছিত হওয়া সেই অধ্যক্ষ শিশুদের কে জি স্কুলে ভর্তি হওয়ার প্রবণতা দুঃখজনক : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী - dainik shiksha শিশুদের কে জি স্কুলে ভর্তি হওয়ার প্রবণতা দুঃখজনক : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী স্ত্রীর আবদার পূরণে দুর্নীতি করবেন না : দুদক কমিশনার - dainik shiksha স্ত্রীর আবদার পূরণে দুর্নীতি করবেন না : দুদক কমিশনার ইবতেদায়ি শিক্ষকদের তিন মাসের অনুদানের চেক ছাড় - dainik shiksha ইবতেদায়ি শিক্ষকদের তিন মাসের অনুদানের চেক ছাড় please click here to view dainikshiksha website