শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডের বকেয়া বেতনের চাহিদা জানতে চায় অধিদপ্তর - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডের বকেয়া বেতনের চাহিদা জানতে চায় অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডের  বকেয়া বেতনের চাহিদা জানতে চেয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড কার্যকর হওয়ার অনেক শিক্ষকেই বকেয়া বেতন ভাতা পাবেন। শিক্ষকদের বকেয়া বেতন ভাতা দেয়ার চাহিদা পাঠাতে মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, মাঠ পর্যায় থেকে চাহিদা আসলেই মহাপরিচালকের অনুমতি নিয়ে শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডের বকেয়া বেতন দেয়ার অনুমতি দেয়া হবে।

 

গতকাল বুধবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতনের চাহিদা জানতে চেয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের চিঠি পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবারের মধ্যে চাহিদার তথ্য ইমেইল অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে। 

বিষয়টি দৈনিক শিক্ষাডটকমকে নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অর্থ ও রাজস্ব শাখার সহকারী পরিচালক মো. নুরুল ইসলাম। তিনি জানান, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে বকেয়া বেতন দেয়ার চাহিদা জানতে চাওয়া হয়েছে। তবে, এখনো ১৩তম গ্রেডে বকেয়া দেয়ার অনুমতি হয়নি। মাঠ পর্যায় থেকে চাহিদা এলে তার ফাইল মহাপরিচালক মহাদয়ের টেবিলে ওঠানো হবে। ডিজি স্যারের অনুমতিক্রমে মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তাদের সহকারী শিক্ষকদের বকেয়া বেতন দেয়ার অনুমতি দেয়া হবে। 

এদিকে শিক্ষক ও নেতাদের কেউ কেউ চাহিদা চেয়ে অধিদপ্তরের জারি করা চিঠিটিতে ১৩তম গ্রেডের বকেয়া দেয়ার অনুমতি বলে প্রচার করছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সহকারী পরিচালক আরও বলেন, এটি অনুমতি না, আমরা চাহিদা জানতে চেয়েছি।

কবে নাগাদ শিক্ষকরা বকেয়া বেতন পেতে পারেন জানতে চাইলে এ কর্মকর্তা আরও বলেন, মাঠ পর্যায় থেকে তথ্য এসে পৌঁছালেই শিক্ষকদের বকেয়া বেতনের ফাইল মহাপরিচালক মহাদয়ের টেবিলে ওঠানো হবে। মহাপরিচালক মহাদয় অনুমতি দিলেই মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের শিক্ষকদের বকেয়া টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দেয়া হবে। 


 
মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তাদের বুধবার পাঠানো চিঠিতে অধিদপ্তর বলেছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষকদের পদটি ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে অধিকাংশ শিক্ষকের বেতন নির্ধারণ সম্পন্ন হয়েছে। তরা উন্নীতস্কেলে নিয়মিত বেতন ভাতা পাচ্ছেন। সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হওয়ার শিক্ষকদের সবাই বকেয়া বেতন-ভাতা প্রাপ্য হয়েছে। 

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ২০২১-২২ অর্থবছরের সংশোধিত রাজস্ব বাজেটে অর্থবছরের শেষ মাস অর্থাৎ ২০২২ খ্রিষ্টাব্দের মে মাস পর্যন্ত বেতন-ভাতা পরিশোধের পর এ খাতে উদ্বৃত্ত টাকা থেকে ১৩তম গ্রেডে বকেয়া পরিশোধের অনুমতির বিষয় সিদ্ধান্ত ও মে মাসের পর উদ্বৃত্ত টাকা সংকুলান না হলে আগামী ১২ মের মধ্যে জরুরি ভিত্তিতে অতিরিক্ত চাহিদা ইমেইলে অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের। অধিদপ্তর আরও বলছে, যেসব উপজেলা বা থানা ইতোমধ্যে সহকারী শিক্ষকদের ১৩ত গ্রেডের বকেয়া পরিশোধ করেছেন তাদের শূন্য প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। 

এদিকে মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা হলে তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, সহকারী শিক্ষকদের বেশিরভাগই এখনো ১৩তম গ্রেডের বকেয়ার টাকা পাননি। দুই একটি উপজেলা হয়তো এ টাকা পেয়েছে। তবে বেশিরভাগ শিক্ষকের বকেয়া বেতন বাকি আছে।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল    SUBSCRIBE   করতে ক্লিক করুন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়-ইউজিসির ১২ কর্মকর্তার বিদেশ সফর বাতিল - dainik shiksha শিক্ষা মন্ত্রণালয়-ইউজিসির ১২ কর্মকর্তার বিদেশ সফর বাতিল প্রশ্নফাঁসে শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তারাই জড়িত, দুজনকে খুঁজছে পুলিশ - dainik shiksha প্রশ্নফাঁসে শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তারাই জড়িত, দুজনকে খুঁজছে পুলিশ পাঠ্যবইয়ে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে সিনথেটিক ড্রাগসের ভয়াবহতা - dainik shiksha পাঠ্যবইয়ে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে সিনথেটিক ড্রাগসের ভয়াবহতা প্রভাষকদের পদোন্নতি কমিটির সভাপতি হবেন ডিসিরা - dainik shiksha প্রভাষকদের পদোন্নতি কমিটির সভাপতি হবেন ডিসিরা টানা বর্ষণে সিলেটে বন্যা, বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ - dainik shiksha টানা বর্ষণে সিলেটে বন্যা, বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ড্রাইভারকে দেয়া হচ্ছে উপসচিবের সমান বেতন - dainik shiksha ড্রাইভারকে দেয়া হচ্ছে উপসচিবের সমান বেতন ঢাকা ও চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে নতুন চেয়ারম্যান - dainik shiksha ঢাকা ও চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে নতুন চেয়ারম্যান please click here to view dainikshiksha website