মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Md. Abdul Hakim, ০৬ মার্চ, ২০২১
মাদরাসা শিক্ষাকে ধ্বংসের চক্রান্ত ছাড়া আর কিছুই নয়.। বাংলা,গনিত,ইংরেজি শিক্ষককে অপমান করা হলো।স্বাধীনতার পর হতেই মাদরাসার প্রাত্যাহিক কাজ শুরু করার আগে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় এবং জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন হয় ।তথাপিও কু-চক্রিমহল ষড়যন্ত্র করতেই থাকে।ইনশাল্লাহ ষড়যন্ত্রের অবশান হবে।
মোঃ হারুনুর রশিদ , সহকারি শিক্ষক ,তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, ০৬ মার্চ, ২০২১
মাদ্রাসার বাংলা, ইংরেজী ও গণিতের খাতা তো মৌলভীরা মূল্যায়ন করেন না অথবা পড়ান না। আপনাদের মতো স্কুল কলেজে পড়া স্যারেরাই তো পড়ান এবং খাতা মূল্যায়ন করেন।
Abul Kalam, ০৬ মার্চ, ২০২১
মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বাংলা,গনিত,ইংরেজি খাতা বিষয় ভিত্তিক শিক্ষক দ্বারা মূল্যায়ন না করিয়ে অন্য শিক্ষক এমন কি অফিস সহকারি দ্বারা মূল্যায়ন করানো হয়। তাই অন্য বোর্ড নয় বিষয় ভিত্তিক শিক্ষক দ্বারা মূল্যায়ন করানো হোক।
মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান, ০৬ মার্চ, ২০২১
বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীন সকল (আলিয়া) মাদরাসায় স্বাধীনতার পর হতেই জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়ে আসছে। মাদ্রাসার জেনারেল বিষয়গুলো যারা পড়াচ্ছেন তাদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা না করে অন্য বোর্ডের শিক্ষক দিয়ে উত্তরপত্র মূল্যায়নের প্রস্তাবের প্রতিবাধ জানাচ্ছি।
Mohammad Delowair Hossain, ০৫ মার্চ, ২০২১
বাংলাদেশ মাদ্রাসা জেনারেল টিচার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে তীব্র তীন্দা জানাচ্ছি ।
Md. Kutub uddin, ০৫ মার্চ, ২০২১
আল্লাহ তায়ালা সকলকে সঠিক বুঝার তাওফিক দিন।
Md. Kutub uddin, ০৫ মার্চ, ২০২১
স্ব বিরোধী কথা। মাদ্রাসার বাংলা ইংরেজী গণিতের খাতা তো মৌলভীরা মূল্যায়ন করেন না অথবা পড়ান না। আপনাদের মতো স্কুল কলেজে পড়া স্যারেরাই তো পড়ান এবং খাতা দেখেন। আসলে অনেকে মাদ্রাসা নামটাই শুনতে চান না। মাদ্রাসায় পড়ে যখন ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে, মেডিক্যালে, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যায়ে চান্স পান। তখনতো অনেকেেরই গা জ্বলে। আল্লাহ তায়ালা এ মানুষগুলোকে সঠিক জ্ঞান দান করুন আমীন।।
Salim uddin, ০৫ মার্চ, ২০২১
বর্তমানে আমি মাদ্রাসার একজন গণিত শিক্ষক । নিবন্ধনের পর ৫বছর স্কুলে শিক্ষকতা করেছি । পরে মাদ্রাসায় আসলাম। বর্তমানে মাদ্রাসার বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও আরবি বিষয় ব্যতিত সকল বিষয় স্কুল মাদ্রাসা একই সিলেবাস। কিন্তু মাননীয় সংসদীয় কমিটির সুপারিসে বিষয় গুলো অন্য বোর্ডের শিক্ষক দ্বারা নিরীক্ষা যা আমার পক্ষে অপমান জনক। উল্লেখ যে স্কুলের চেয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বইয়ের সংখ্যা বেশি।আমার মতে খাতা নিরীক্ষা কমিটি সংশোধন প্রয়োজন।
Habibur Rahman Khan, ০৫ মার্চ, ২০২১
খুব ভালো উদ্যোগ
Habibur Rahman Khan, ০৫ মার্চ, ২০২১
খুব ভালো উদ্যোগ
Md Amanullah Aman, ০৫ মার্চ, ২০২১
কেন মাদ্রাসাতে কি গণিত ও ইংরেজির শিক্ষক নাই? নাকি এটা বুঝাতে চাচ্ছেন যে,"মাদ্রাসার শিক্ষকরা কুরআন,হাদীস,আরবী,ফিকাহ,বাংলা এগুলা ছাড়া কিছুই তারা পড়াতে পারেন না"।
Momo, ০৪ মার্চ, ২০২১
২০% পাশ করবে না
মোঃ অাবদুল মোনায়েম, ০৪ মার্চ, ২০২১
স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীদের খাতা মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের শিক্ষক দিয়ে মূল্যয়ন করান হউক।এনারাতো সংখ্যায় কম তাই এক বোর্ডের খাতা অন্য বোর্ডের শিক্ষক দিয়ে মূল্যয়ন করা কেমন হয়?
Habibur Rahman Khan, ০৪ মার্চ, ২০২১
এটাই হলো সর্বোত্তম পদ্ধতি।
Habibur Rahman Khan, ০৪ মার্চ, ২০২১
এটাই হলো সর্বোত্তম পদ্ধতি।
Md. Alamgir Hossain, ০৪ মার্চ, ২০২১
এই ধরনের সিদ্ধান্ত মাদরাসা শিক্ষাকে ধ্বংসের চক্রান্ত ছাড়া আর কিছুই নয়। মাদরাসার শিক্ষকদের অন্যান্য বোর্ডের বাংল, ইংরেজ, গণিত খাতা মূল্যায়নের সুযোগ দেওয়া হোক। দেখা যাক কত ধানে কত চাল? আপনাদের মাধ্যমে আমার মন্তব্যটি জাতির সামনে তুলে ধরার অনুরোধ করছি। ধন্যবাদ।