please click here to view dainikshiksha website

ছাত্রীদের কোলে বসিয়ে ছবি তোলা শখ শিক্ষকের!

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক | আগস্ট ৫, ২০১৭ - ১১:৫০ অপরাহ্ণ
dainikshiksha print

শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কাজ ক্লাসের শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা। কিন্তু এই শিক্ষক সেই কাজটি কতটা করেন তা জানা নেই। তবে কোমলমতি ছাত্রীদের কোলে বসিয়ে অসংলগ্ন অবস্থায় ছবি তোলেন অহরহ।

এখানেই শেষ নয়, সেসব ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেন নিয়মিত। তবে এত কিছুর পরেও গ্রেপ্তার হওয়া তো দূরের কথা, ঘুরে বেড়াচ্ছেন বহাল তবিয়তেই।

ভারতের অাসামের হাইলাকান্দি জেলার কাতলিচেরা টাউনের একটি সরকারি স্কুলে পড়ান অভিযুক্ত শিক্ষক ফইজুদ্দিন লস্কর। তার এমন ঘটনা এটাই প্রথম নয়। এর আগেও এক নারীকে প্রকাশ্যে জড়িয়ে ধরায় গণপিটুনির শিকার হন তিনি। উত্তেজিত জনতা তার একটি আঙুলও কেটে নেয় সে সময়।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় শিক্ষকের সঙ্গে মেয়ের আপত্তিকর ছবি দেখার পর পুলিশে অভিযোগ করেন এক অভিভাবক। কিন্তু থানায় ডেকে ফইজুদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই ছেড়ে দেওয়া হয়। এ নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন স্থানীয়রা। এর জন্য স্থানীয় লালা থানার সিনিয়র অফিসার মনিরুল ইসলাম-কে দায়ী করছেন তারা।

স্যোসাল মিডিয়ার ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ক্লাসের মধ্যেই ব্ল্যাক বোর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে-বসে এসব ছবি তোলা হয়েছে। এত দিন ধরে এ কাজ করার পরও কী ভাবে স্কুল কর্তৃপক্ষের চোখ এড়িয়ে গেল বিষয়টা সেটাই বড় প্রশ্ন এখন। শিক্ষকের বিরুদ্ধে এফআইআর হওয়ার পরেও কেনো তাকে গ্রেপ্তার করা হল না উত্তর মেলেনি সেই প্রশ্নেরও।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ৩১টি

  1. Sarwar says:

    This animal type teacher should be cross

  2. Sarwar says:

    This animal type teacher should be crossed fire.there are many ruskels in Bangladesh too.

  3. Mr. Roy says:

    এই পশুরাই শিক্ষক জাতির সম্মান নষ্ট করে দিয়েছে … দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক ….

  4. sojib says:

    মানুষ না জান‌োয়ার

  5. মোঃ সাজ্জাদুর রহমান,লক্ষীপুর স্কুল ও কলেজ says:

    শিক্ষক নামের এই বদমাইশের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

  6. শাহীনূর আক্তার, প্রভাষক (উদ্ভিদবিদ্যা) আমতলী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা,মোরেলগঞ্জ -বাগেরহাট। says:

    শিক্ষক নামটাকে ই কলঙ্কিত করেছে। দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি হওয়া উচিৎ। আর এমন সব ঘটনা ভারতেই সম্ভব!!!

  7. হাফেজ মোঃ ছাইফুল ইসলাম, সিনিয়র শিক্ষক(জীববিজ্ঞান),শিচারপাড়া বুলজান উঃ বিঃ ,সোনাতলা , বগুড়া । says:

    এই পশুরাই শিক্ষক জাতির সম্মান নষ্ট করে দিয়েছে … দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক ….

  8. হুমায়ুন কবির says:

    উদার যৌনতার জগৎ! এই উপমহাদেশের যৌনতাকে উসকে দেয়ার কেন্দ্রবিন্দু- এক কথায়- যৌনতার রাজধানি! ওখানে এটাকে অপরাধ হিসেবে দেখার যৌক্তিকতা নেই!

  9. A khaleque says:

    ভারতের একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষকের কুরূচিপূর্ন সংবাদ দৈনিক শিক্ষাডটকমের মতো শিক্ষা বিষয়ক পত্রিকায় প্রকাশ করা কতটুকু যুক্তিযুক্ত। তাও আবার শিরোনামবিহীন। আশা করিনি।

  10. Helal uddun, Secretary, Bangladesh Teachers association, Dashmina, Patuakhali. says:

    এটাকে যেমন তারা seriously নিচ্ছেননা আর আমরাও importancy দিচ্ছিনা। এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। আর এও হতে পারে এটি animated.

  11. সঞ্জয় says:

    বংশ পরিচয় জেনে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া উচিত।ব্যাবহারেই বংশের পরিচয়।

  12. Ziaur Rahman, Asistant Teacher(Mathematics), Harinarayanpur secondary girls school, E.b, Kushtia says:

    শিক্ষক নামের এই বদমাইশের দৃষ্টান্তমূলক
    শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

  13. মোঃশহিদুল ইসলাম। সহকারী শিক্ষক মুন্সীরহাট উচ্চ বিদ্যালয় চৌদ্দগ্রাম কুমিল্লা says:

    জাতির জন্য অভিশাপ এই শিক্ষক

    • মোঃ তছমীর গনী, স/শি, মাংতাই সঃপ্রাঃবিঃ, আলীকদম, বান্দরবান। says:

      অবাধ যৌনতার দেশ, পর্নোগ্রাফির রাজধানী যে দেশে সে দেশের এমন বাজে খবর এমন একটা প্লেসে প্রচার হবে তা আশা করিনি।

  14. আজাদ সিদ্দিকী says:

    ভারতে সবই সম্ভব ৷

  15. সাহেদুল ইসলাম সহকারি শি.গি.উ.বি.মিঠাপুকুর.রই says:

    উদ্দেশ্য ভাল নয়

  16. মোঃরফিকুল ইসলাম,সহকারী শিক্ষক,আল-মাদানী দাখিল মাদ্রাসা,আশাশুনি, সাতক্ষীরা। says:

    এই ধরনের নুচ্যা শিক্ষকের জন্য শিক্ষক সমাজের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে।এরা শিক্ষক নামের কলঙ্ক।

  17. shahjahan ali john says:

    শিক্ষা মানুষ কে সভ্য করে ।আমাদের সেলেবাসে কত টুকু সেই সুযোগ আছে ?

  18. মতিউর রহমান মতিন। হাজি ইব্রাহিম আলমচান মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, বন্দর, নারায়ণগঞ্জ। says:

    ভারতে নোংরা কত কিছু ঘটে তা নিয়ে মাতামাতি করে লাভ নেই। বরং বেশি আলোচনায় উৎসাহিত হয়।

  19. MD.JASIM UDDIN SFI GIRLS HIGH SCHOOL says:

    ADER MOTO NORO POSURA SOKOL TEACHER DER COLONKITO KORSE. ADER SASTI DITE HOBE

  20. বিধান সরকার says:

    একজন শিক্ষক এমন ধরনের ছবি সবার সামনে তুলবেন, আবার নিজেই সেটা সামাজিক যোগাযোগে পোষ্ট দিবেন এমনটা হওয়ার কথা না । এর দুটি কারন হতে পারে । এক ওই শিক্ষকের মস্তিষ্ক বিকৃতি । দুই তার বিরুদ্ধে কোন কঠিন ষড়যন্তৃ । কেননা ভারতে সে সংখৎালঘু । যেমনা হয়েছে বাংলাদেশে নারায়নগন্জের শিক্ষকের বিরুদ্ধে । কারন বাংলাদেশে সে সংখৎালঘু ছিল । আসলে সব দেশেই স্বাথবাজ ভন্ড ধামিক রয়েছে । দুঃখিত মোবাইল অপশন যথেষ্ট না থাকায় কিছু বানান ভুল আছে, কষ্ট করে পড়ে বুঝে নিবেন ।

  21. আমীর খসরু says:

    মন্তব্য লিখে কি হবে?

  22. মোঃ কাজী জাফর, সহকারি শিক্ষক(কম্পিউটার), সৈয়দ আবদুল মান্নান ডি.ডি.এফ আলিম মাদ্রাসা, বরিশাল। says:

    উক্ত নরপশু শিক্ষককে গায়ে কেরোসিন বা পেট্রল দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে সাথে করতালীসহ উল্লাস সহকারে শাস্তি পর্যবেক্ষন করতে হবে। এর পর থেকে কোন শিক্ষক নামধারী নরপশু যেন এহেন গর্হীত কাজ করতে আর সাহস না পায়।

  23. নাসরিন আখতার says:

    ভারতে সবই সম্ভব ৷ভারতে নোংরা কত কিছু ঘটে তা নিয়ে মাতামাতি করে লাভ নেই।

  24. মোঃ হাসান আলী says:

    ভারতের শিক্ষকদের কথা আর কি বলব। ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়।

  25. প্রেমানন্দ says:

    কিচ্ছু বলার নেই ।

  26. এম,এ,কে জিলানী says:

    ‌কিছু নামধা‌রি শিক্ষক লো‌কের কার‌ণে শিক্ষ‌করা অব‌হে‌লিত হয়। কর্তৃপ‌ক্ষের নিকট দৃষ্টান্ত ব্যবস্থা গ্রহ‌ণের জন্য অনু‌রোধ জানা‌চ্ছি ।

  27. মোঃ আনোয়ার হোসেন। says:

    ভারতে এটা তেমন কিছু না।

আপনার মন্তব্য দিন