please click here to view dainikshiksha website

টাকা চুরির অভিযোগে ৭০ শিক্ষার্থীকে মারধর

রংপুর অফিস    | আগস্ট ১০, ২০১৭ - ৮:৩৪ পূর্বাহ্ণ
dainikshiksha print

রংপুরের মিঠাপুকুরে শিক্ষিকার চার টাকা চুরির অভিযোগে ৭০ জন শিক্ষার্থীকে মারধর করা হয়েছে। উপজেলার বালুয়ামাসিমপুর ইউনিয়নের হামিদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শেষে শিক্ষক নাজমুস সাহিদা অফিস কক্ষে গিয়ে দেখেন তাঁর ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে চার টাকা চুরি হয়েছে। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে টাকা চুরির অভিযোগ এনে তৃতীয় শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীকে মারধর করেন। শিক্ষার্থীরা টাকা চুরি করেনি বললেও তিনি তাতে কান দেননি। মারধরে অনেক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে শিক্ষিকা নাজমুস সাহিদা সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে প্রায়ই টাকা চুরি হয়। সেদিনও টাকা চুরি গেছে। বারবার বলার পরও শিক্ষার্থীরা স্বীকার করছিল না। তাই ওদের মেরেছি। এটা তো দোষের কিছু নয়।

’বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেন, বিষয়টি নিয়ে কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। পরে তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন-অর-রশীদ বলেন, শিক্ষার্থীদের মারধরের বিধান নেই। তা ছাড়া ওই শিক্ষিকা মাত্র চার টাকা চুরির অপরাধে এতগুলো শিক্ষার্থীকে মারধর করেছেন, যা মেনে নেওয়া যায় না। তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


পাঠকের মন্তব্যঃ ৪টি

  1. হুমায়ুন কবির says:

    সঠিক ব্যবস্থা হলো- শিক্ষার্থীদের সামনেই ওই শিক্ষিকা নামের কলঙ্ককে অভিভাবকদের দ্বারা অমন করেই পিটাতে হবে। সরকারিভাবেই শিক্ষার্থীদের শারীরিক-মানসিক শাস্তি যেখানে আইনত নিষিদ্ধ সেখানে এমন বেপরোয়া কলঙ্ককে অবশ্যই ওই শাস্তি দিতে হবে।

  2. জি এম মঈনুদ্দীন আহমেদ,কয়রা,খুলনা। says:

    চারটি টাকা বড় কথা নয়।চুরি যদি করে থাকে তবে শিক্ষা দেওয়ার জন্য না মেরে অন্যভাবে শাস্তি দেওয়া যেত।

  3. সাহেদুল ইসলাম সহকারি শি.গি.উ.বি.মিঠাপুকুর.রংপুর। says:

    চার টাকার বেশী এখন মানুষ ভিক্ষা দেয়।চার টাকার জন্যে ৭০ শিক্ষাথীকে মারা ঠিক হয়নি। শিক্ষিকার মানসিক সমস্যা আছে।

  4. মতিউর রহমান খান, সিনিয়র শিক্ষক, পিরিজপুর উচ্চ বিদ্যালয়, কাপাসিয়া, গাজীপুর। says:

    হয় মানবতা বিপন্ন নয় মানসিকতায় অন্ধ এ শিক্ষকের। তাই আমার শাস্তি আমি চাই । কোন প্রশিক্ষণই গ্রহণ করেননি তিনি। এটা সুনিশ্চিত…

আপনার মন্তব্য দিন