বেরোবি শিক্ষক সমিতির পাল্টাপাল্টি চিঠি - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

বেরোবি শিক্ষক সমিতির পাল্টাপাল্টি চিঠি

বেরোবি প্রতিনিধি |

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভিসি) ভিসি প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহর কাছে পাল্টাপাল্টি দুইটি চিঠি পাঠিয়েছে শিক্ষক সমিতির দুটি অংশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির কার্যকরী সংসদের সাধারণ সভা গত ১৩ই আগস্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার পর তাকে কেন্দ্র করে এই চিঠি দেওয়া হয়।

গত বুধবার দুপুরে শিক্ষক সমিতির কার্যকরী সংসদের সাধারণ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর ৬ দফা দাবিতে লিখিত চিঠি দেয়া হয়। শিক্ষক সমিতির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এই চিঠিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ৬টি দাবির কথা উল্লেখ করা হয়।

দাবিসমূহ হলো-(১) দীর্ঘদিন থেকে যারা পদোন্নতি বঞ্চিত তাদের পদোন্নতি/ আপগ্রেডেশনের সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সিন্ডেকেট সভায় অনুমোদন করতে হবে। (২) যাদের পদোন্নতি আপগ্রেডেশন বোর্ড সম্পন্ন হয়েছে তাদেরও আগামী ১৫ দিনের মধ্যে পদোন্নতি দিতে হবে। (৩) পরীক্ষার পারিতোষিক বিল জমাদানের সাত দিনের মধ্যে প্রদান করতে হবে। (৪) ইতোপূর্বে পদোন্নতি প্রাপ্ত ২৭ জন শিক্ষকের বকেয়া প্রদান করতে হবে। (৫) শিক্ষক-কর্মকর্তা,কর্মচারীদের জিপিএফ ও পেনশন নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে। এবং (৬) উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক মীর তামান্না এবং হুমায়ুন কবীর এর সাথে সেকশন অফিসার গ্রেড-২ সিরাজুম মুনিরার অসাদাচরণের পরিপ্রেক্ষিতে গঠিত কমিটিকে সক্রিয় করারও অনুরোধ করা হয়।

একই দিনে সমিতির কার্যনির্বাহী সংসদের সভা পুনরায় করার দাবি জানিয়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর অন্য একটি চিঠি পাঠিয়েছেন সমিতির নির্বাহী কমিটির অন্য কয়েকজন সদস্য। চিঠির অনুলিপি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং রেজিস্ট্রার বরাবরও পাঠানো হয়।

তাদের দাবি, সমিতির কার্যকরী সংসদের সাধারণ সভার আলোচ্যসূচিতে শিক্ষক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় অধিকাংশ আলোচ্যসূচির বিষয়ে সমিতির সকল সদস্যদের পূর্ণ মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। যার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজ তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ কলাণ নিশ্চিত হতো। কিন্তু তা না করায় সমিতির সকল সদস্যগণ তাদের পূর্ণ মতামত দিতে পারেনি। এজন্য উক্ত সভা পুনরায় আহ্বান করার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

তাদের দাবির জবাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন,“ শিক্ষক সমিতির গঠনতন্ত্র মেনেই উক্ত সভা করা হয়েছে। তাছাড়া, সভা চলাকালীন সময়েও তাদের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। সভা কখনো পুনরায় করা যায় না, তবে নতুন কোন বিষয় নিয়ে আবার সভা হতে পারে।”

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) - dainik shiksha এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব - dainik shiksha ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা - dainik shiksha নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website