শিওরক্যাশের ব্যর্থতায় করোনায় উপবৃত্তির টাকা পেতে স্কুলে শিক্ষার্থীদের জমায়েত - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

শিওরক্যাশের ব্যর্থতায় করোনায় উপবৃত্তির টাকা পেতে স্কুলে শিক্ষার্থীদের জমায়েত

পাবনা প্রতিনিধি |

শিওরক্যাশের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মায়েদের হিসেবে প্রাথমিক উপবৃত্তির টাকা পাঠানোর সরকারি সিদ্ধান্ত থাকলেও তা মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়ন হচ্ছেনা। শিওরক্যাশের এজেন্ট ও ডিলারের স্বল্পতা, এজেন্টদের কাছে টাকা না থাকা, উপবৃত্তির টাকা ক্যাশ আউট করতে চাইলে অতিরিক্ত টাকা চাওয়া, শিওরক্যাশের প্রধান কার্যালয়ে প্রয়োজনীয় ও দক্ষ জনবলের অভাব থাকলেও তাদেরকেই উপবৃত্তির টাকা বিতরণের দায়িত্ব দিচ্ছে একটি চক্র। শিওরক্যাশের অদক্ষতায় করোনার এই মহামারির মধ্যেও উপবৃত্তির টাকা পেতে অভিভাবকরা তাদের সন্তানসহ স্কুলে হাজির হতে বাধ্য হচ্ছেন। ফলে  প্রাথমিকের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি ও পোশাক কেনার টাকা দেয়ার সরকারের মহৎ উদ্যোগ বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। লকডাউনে ঘরে থাকার সরকারি আদেশও উপেক্ষা হচ্ছে। দেশের সাড়ে চারকোটির বেশি শিক্ষার্থীকে রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছেন করোনার প্রকোপ অব্যাহত থাকলে সেপ্টেম্বরের আগে স্কুল খুলবে না।   

দৈনিক শিক্ষার বেড়া উপজেলা সংবাদদাতা জানান, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও পাবনার বেড়া উপজেলার হাটুরিয়া-জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপবৃত্তির টাকা নিতে জড়ো হতে বাধ্য হয়েছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।  এ সময় কেউই স্বাস্থ্যবিধি মানেননি। গত শুক্রবারের এ ঘটনার জেরে সমালোচনার ঝড় অব্যাহত।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা দেওয়ার জন্য কয়েকদিন ধরে উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে তৎপরতা চলছে। এরই অংশ হিসেবে হাটুরিয়া-জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গত বৃহস্পতিবার মাইকিং করে প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে আসতে বলা হয়। তবে বিদ্যালয়ের সব শ্রেণির কয়েকশ' অভিভাবক শিক্ষার্থীসহ শুক্রবার বিদ্যালয়ে এসে উপস্থিত হন। এতে বিদ্যালয়ের মাঠে সৃষ্টি হয় ব্যাপক জমায়েত।

আরও পড়ুন: 

শিওর ক্যাশের ২ শতাধিক কর্মী ছাটাই, কোটি শিক্ষার্থীর উপবৃত্তি বিতরণ ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা

রকেট ও শিওরক্যাশ এজেন্টদের টাকা না দিলে উপবৃত্তি মেলেনা ঝালকাঠীতে

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম হোসেন বলেন, আমরা প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির কিছু শিক্ষার্থীকে অভিভাবকের মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে আসতে বলেছিলাম। কিন্তু ভুল বুঝে বেশিরভাগ অভিভাবকই সন্তানসহ বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন। শিওরক্যাশের লোক পাওয়া যায়না। 

বেড়া উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. তোফাজ্জল হোসেন বলেন, শিশু শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অথবা মোবাইল ফোনে অবিভাবকদের আইডি কার্ডের নম্বর ও ছবি সংগ্রহ করার কথা। কিন্তু ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ব্যক্তিগত উদ্যেগে মাইকিং করেছেন।

বেড়া ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকী বলেন, কেন এমন ঘটনা ঘটল সে ব্যাপারে সংশ্নিষ্টদের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।

পাবনার এই ঘটনার বিষয়ে শিওরক্যাশের হেড অফিসের কয়েকজনের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হয় দৈনিক শিক্ষার পক্ষ থেকে। তারা সবাই জানান, তারা আর শিওরক্যাশে চাকরি করছেন না। তাদেরকে ছাঁটাই করা হয়েছে তাই উপবৃত্তি বিতরণ কাজ মনিটর করার জন্য নতুন কাউকে দায়িত্বও দেয়া হয়নি। 

শিওরক্যাশ শুধু অভিভাবকের সাথেই নয় বাংলালিংকের সাথেও জালিয়াতি করেছে। চারবছর আগে। বাংলালিংকের অনুমোদন ছাড়াই তাদের নেটওয়ার্ক সুবিধা গ্রহণ করে উপবৃত্তি বিতরণ শুরু করে শিওর ক্যাশ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রাথমিক শিক্ষাথীদের উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে দিতে রূপালী ব্যাংকের নেওয়া কর্মসূচি থেকে সরে আসতে চেয়েছিলো বাংলালিংক। 

বাংলালিংকের পক্ষ থেকে ২০১৭ সালে রূপালী ব্যাংকের এমডি বরাবর চিঠি দিয়ে আগামী ওই বছেরর ৩ নভেম্বরের পর এ সেবা থেকে সরে আসার কথা বলা হয়েছিলো। এরপর থেকে নানা জটিলতায় পড়েছে শিওর ক্যাশ। 

বাংলালিংকের চিঠিতে বলা হয়, রূপালী ব্যাংকের সঙ্গে ২০১৬ সালের ১১ জুলাই তাদের একটি অংশগ্রহণমূলক চুক্তি হয়। পরে কোনো ধরনের অনুমোদন ছাড়াই শিওরক্যাশ গত ১ মার্চ থেকে তাদের সেবা ব্যবহার করছে। এটা তাদের সঙ্গে করা চুক্তির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। চুক্তি থেকে সরে আসার বিষয়টি মনে করিয়ে রূপালী ব্যাংককে আবার চিঠি দেওয়া হয়েছিলো।

করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ - dainik shiksha করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩ হাজার ২৮৮ এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন আরও ৭৩ শিক্ষক সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ - dainik shiksha সরকারি স্কুল-কলেজ কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণের নির্দেশ শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে - dainik shiksha শ্রান্তি বিনোদন ভাতা তুলতে চাঁদা নেয়ার অভিযোগ তিন শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত - dainik shiksha শিক্ষা কর্মকর্তার গাফিলতিতে ১৭ স্কুল মেরামতের সাড়ে ৩৫ লাখ টাকা ফেরত পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না - dainik shiksha পলিটেকনিকে ভর্তিতে বয়সসীমা থাকছে না সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু - dainik shiksha সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদের আবেদন শুরু বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website