সনদের বৈধতা দিতে রাজি নয় ইউজিসি - বিশ্ববিদ্যালয় - Dainikshiksha

দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়সনদের বৈধতা দিতে রাজি নয় ইউজিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

সম্প্রতি বন্ধ হয়ে যাওয়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় দারুল ইহসানের সার্টিফিকেটের বৈধতা দিতে রাজি নয় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। আদালতের নির্দেশনা অনুসারে কর্মরত প্রতিষ্ঠান এ বিশ্ববিদ্যলয়ের সার্টিফিকেট গ্রহণ বা বাতিল করতে পারবে উল্লেখ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে মতামত পাঠিয়েছে ইউজিসি। 

জানা গেছে, দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯ আউটার ক্যাম্পাস থেকে পাস করে বের হয়ে যাওয়া শিক্ষার্থীদের সনদ বৈধ এবং তা সংরক্ষণের জন্য ইউজিসির কাছে মতামত চেয়ে চিঠি দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। গত ২৯ জুন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (বিশ্ববিদ্যালয়-১) জিন্নাত রেহানা স্বাক্ষরিত ওই চিঠি গত ১৫ জুলাই ইউজিসিতে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন: দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদের গ্রহণযোগ্যতা বিষয়ে রুল জারি

চিঠিতে বলা হয়েছে, হাইকোর্ট ২০০৮ সালের ৩০ জুলাই দায়ের করা রিট মামলায় (মামলা নম্বর ৩১৮৯/০৮) প্রদত্ত রায়ে ২৯ ক্যাম্পাস পরিচালনার বিষয়ে বৈধতা প্রদান এবং ২০১২ সালের ৩১ জুলাই এই ২৯ আউটার ক্যাম্পাস থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট বৈধ বলে রায় দেন। আদালতের রায়ের আলোকে পরিচালিত ২৯টি আউটার ক্যাম্পাসের ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া শিক্ষার্থীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা ইউজিসিতে সংরক্ষণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, ‘দারুল ইহসানের ২৯ আউটার ক্যাম্পাস থেকে পাস করে যাওয়া শিক্ষার্থীদের সনদ সরকার ও ইউজিসি কর্তৃক স্বীকৃতি প্রদান ও তা ইউজিসিতে সংরক্ষণের জন্য সুস্পষ্ঠ মতামত প্রদানের জন্য ইউজিসিকে অনুরোধ করা হলো।’

আরও পড়ুন: আপিলের নির্দেশে দারুল ইহসান সনদধারীদের আশাভঙ্গ!

এ চিঠির ভিত্তিতে চলতি সপ্তাহে ইউজিসি থেকে মতামত পাঠানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, আদালতের নির্দেশনায় দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট গ্রহণের বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট গ্রহণ করতেও পারে, চাইলে নাও করতে পারে। এ বিষয়ে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান সিদ্ধান্ত নেবে। আদালতের নির্দেশনার বাইরে এ বিষয়ে নতুন করে ইউজিসি মতামত দিতে পারে না বলে ইউজিসির চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বৃহস্পতিবার ইউজিসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, ‘দারুল ইহসানের কোন ক্যাম্পাসের সার্টিফিকেট গ্রহণ হবে, তা নতুন করে বলার কিছু নেই। এ বিষয়ে আদালতের রায়ে পরিষ্কার করে বলে দেয়া হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে মতামত চাইলে আমরা তাই জানিয়ে দিয়েছি।’

আরও পড়ুন: অবশেষে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের নির্দেশ

এর আগে ইউজিসি থেকে বলা হয়েছিল ২০০৬ সাল পর্যন্ত দারুল ইহসানের সার্টিফিকেট বৈধ বলে গণ্য হবে- এমন বিষয় উল্লেখ করলে ইউজিসির চেয়ারম্যান বলেন, ২০০৬ সাল থেকে আমরা দারুল ইহসানের মামলা শুরু করেছিলাম। রায়ের পর এমনটাই ভাবা হয়েছিল। এ কারণে আমি এমন বক্তব্য দিয়েছিলাম। কিন্তু রায়ে এ বিষয়টি উল্লেখ না থাকায় তা বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৬ জুলাই দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম বন্ধসহ সব আউটার ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। হাইকোর্টের এক রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর দারুল ইহসানের সার্টিফিকেট বৈধ করতে একটি মহল নানা মহলে তদবির চালিয়ে যাচ্ছে। তার ভিত্তিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ইউজিসিতে এ বিষয়ে মতামত চেয়ে চিঠি দেয়।

আসছে দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ সুপারিশ - dainik shiksha আসছে দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ সুপারিশ স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ - dainik shiksha স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন ১৪ মার্চ এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) - dainik shiksha এনটিআরসিএর ভুল, আমি পরিপত্র মানি না.. (ভিডিও) এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি - dainik shiksha এমপিওভুক্তির নামে প্রতারণা, মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের কোচিং করাতে দেয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব - dainik shiksha ৬০ বছরেই ছাড়তে হবে দায়িত্ব ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার - dainik shiksha ফল পরিবর্তনের চার ‘গ্যারান্টিদাতা’ গ্রেফতার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা - dainik shiksha নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website