সমাপনী পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের দায়ে ৩ শিক্ষক বরখাস্ত - পরীক্ষা - দৈনিকশিক্ষা

সমাপনী পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের দায়ে ৩ শিক্ষক বরখাস্ত

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : |

যশোরের মণিরামপুরে সদ্য সমাপ্ত প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার দুই কেন্দ্রে প্রশ্নফাঁসসহ অনিয়মের অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় জড়িত ৩ শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্তকৃতরা হলেন উপজেলার বাগডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সৌমিত্র রায়, মশ্মিমনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনিরুজ্জামান এবং হাজরাকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্যামল কুমার সরকার। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার সেহেলি ফেরদৌস।

জানা গেছে, পিইসি পরীক্ষায় গত ২০ নভেম্বর সাধারণ বিজ্ঞান পরীক্ষার দিন উপজেলার পোড়াডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ধর্ম পরীক্ষার দিন মশ্মিমনগর কেন্দ্রে প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটে। বিজ্ঞানের প্রশ্ন কেন্দ্রে আসার পর কেন্দ্র সচিব পরিমল বাবুর মাধ্যমে নৈশ প্রহরী কাম-দপ্তরী মাসুদ রানার হাত হয়ে চলে যায় পার্শ্ববর্তী বাগডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সৌমিতের হাতে। তিনি প্রশ্নের সমাধানকৃত উত্তরপত্র একই এলাকার আড়সিংগাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফটোকপি মেশিনে ৪টি কপি করেন। এর একটি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামছুর রহমান রেখে দিয়ে সহকারী শিক্ষক মিন্টুর মাধ্যমে কেন্দ্রে পৌঁছে দেন। বাকী ৩ কপি নিয়ে মাছুদ রানা চলে যায় কেন্দ্রে।
 
কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, কেন্দ্র সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের উপস্থিতিতে পরীক্ষার রুমে রুমে সেই উত্তর সরবরাহ করার খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসান ঝটিকা অভিযান চালান। তিনি আড়সিংগাড়ী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিবের কাছ থেকে উত্তরপত্র উদ্ধার করেন। ওই দিনই ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফীর নির্দেশে শিক্ষা কর্মকর্তা সেহেলী ফেরদৌস জড়িতদের অফিসে তলব করে কেন্দ্র সচিব পরিমল, সহকারী শিক্ষক সৌমেনসহ ঘটনার সাথে জড়িত ১৮ শিক্ষক-কর্মচারীকে শোকজ করেন।
 
আর ধর্ম পরীক্ষার দিন উপজেলার মশ্মিমনগর কেন্দ্রেও একই ঘটনা ঘটলে ঝটিকা অভিযান চালান সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসান। ওই সময় কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা সহকারী পল্লী উন্নয়ন অফিসার গোপাল গোলদার, কেন্দ্র সচিব শামীমা সুলতানা, হল সুপার ফারহানা, সহকারী হল সুপার ইমান আলীকে অব্যহতি দেয়া হয়।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সেহেলি ফেরদৌস দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, দুই কেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শেখ অহিদুল আলম জানান, ঘটনায় জড়িত ৩ জন প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে লিখিত সুপারিশ উপপরিচালক বরাবর পাঠানা হয়েছে। 

এনটিআরসিএর নতুন চেয়ারম্যান আকরাম হোসেন - dainik shiksha এনটিআরসিএর নতুন চেয়ারম্যান আকরাম হোসেন প্রাথমিকে ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ আসছে - dainik shiksha প্রাথমিকে ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ আসছে গার্ডেনিং করতে ৫ হাজার করে টাকা পাবে ১০ হাজার স্কুল - dainik shiksha গার্ডেনিং করতে ৫ হাজার করে টাকা পাবে ১০ হাজার স্কুল কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের নতুন সচিব আমিনুল ইসলাম - dainik shiksha কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের নতুন সচিব আমিনুল ইসলাম চলতি মাসেই স্থায়ী হচ্ছেন প্রাথমিকের অস্থায়ী প্রধান শিক্ষকরা - dainik shiksha চলতি মাসেই স্থায়ী হচ্ছেন প্রাথমিকের অস্থায়ী প্রধান শিক্ষকরা শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান - dainik shiksha শিক্ষায় বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে লেখা আহ্বান শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ - dainik shiksha শিক্ষক প্রশিক্ষণের নামে টেসলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক - dainik shiksha বিনামূল্যে আন্তর্জাতিক মানের ডিজিটাল কনটেন্ট দিচ্ছে টিউটর্সইঙ্ক শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে - dainik shiksha শিক্ষকদের ফ্রি অনলাইন প্রশিক্ষণ চলছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website