এনজিও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে শিক্ষিকাকে কুপ্রস্তাব দেয়ার অভিযোগ - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

এনজিও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে শিক্ষিকাকে কুপ্রস্তাব দেয়ার অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি |

কিস্তি দেয়ায় বিলম্ব হওয়ায় জেলার মান্দায় বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) আশ্রয় সতিহাট শাখার ম্যানেজার জুয়েলসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে এক স্কুল শিক্ষিকাকে কুপ্রস্তাব দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষিকা প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিতি অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আশ্রয় এনজিও সতিহাট শাখা থেকে গত ২০১৮ সালের ২৮ অক্টোবর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকা পাঁচ লাখ টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। এরপর থেকে কিস্তির টাকা নিয়মিত পরিশোধ করে আসছিলেন তিনি। এ পর্যন্ত এক লাখ ৭২ হাজার ৫০০ টাকা পরিশোধ করেছেন।

কিন্তু করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ঈদুল ফিতরের আগে গত ২০ মে তার কাছ থেকে জোরপূর্বক কিস্তি আদায় করা হয়েছে। কিস্তি দেয়ায় বিলম্ব হওয়ায় তাকে ওই এনজিওর ম্যানেজার জুয়েল, মাঠকর্মী মোজাম্মেল হোসেন, এরিয়া ম্যানেজার শওকত আলী ও আরিফ হোসেন কুপ্রস্তাব দেন। ভুক্তভোগী ওই শিক্ষিকা জানান, তিনি এনজিওর সব নিয়ম-কানুন মেনে ঋণের কিস্তি নিয়মিত পরিশোধ করতেন। কিন্তু বর্তমানে তার সাংসারিক অবস্থা খুব শোচনীয়। তিনি বাধ্য হয়ে তার নিজের ব্যবহৃত স্বর্ণের গহনা বিক্রি করে ও অন্যান্য জিনিসপত্র বন্ধক রেখে ঋণের কিস্তি নিয়মিত পরিশোধ করতে গিয়ে একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন।

এমতাবস্থায় এনজিও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে করোনা পরিস্থিতিতে আগের ঋণের কিস্তিগুলো দ্রুত পরিশোধ করলে আবারও ঋণ দেয়া হবে। আর এজন্য তারা আমার কাছ থেকে কিস্তিগুলো আদায়ের জন্য বেশ পীড়াপীড়ি করছিলেন। তাদেরকে টাকা দিতে বিলম্ব হওয়ায় সতিহাট শাখার ম্যানেজার জুয়েল, মাঠকর্মী মোজাম্মেল হোসেন, এরিয়া ম্যানেজার শওকত আলী ও আরিফ হোসেন কুপ্রস্তাব দেন। অভিযুক্ত এনজিও ম্যানেজার জুয়েল এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু - dainik shiksha ৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! - dainik shiksha এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ - dainik shiksha বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! - dainik shiksha ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি - dainik shiksha নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ - dainik shiksha উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ please click here to view dainikshiksha website