শিক্ষকদের ১১ দফা বাস্তবায়ন না হলে ঈদের পর কঠোর কর্মসূচি - সমিতি সংবাদ - দৈনিকশিক্ষা

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতিশিক্ষকদের ১১ দফা বাস্তবায়ন না হলে ঈদের পর কঠোর কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আসন্ন ঈদুল আজহার আগেই ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)। অন্যথায় ঈদের পর কঠোর কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে। 

আজ শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এ ঘোষণা দেয়।

তাদের দাবিগুলো হলো- ১. মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ ২. আসন্ন ঈদের আগেই সরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের মতো এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, বাড়ি ভাড়া ও চিকিৎসা ভাতা প্রদান, ৩. পূর্ণাঙ্গ পেনশন প্রথা চালু এবং পেনশন প্রথা চালু না হওয়া পর্যন্ত অবসর গ্রহণের ৬ মাসের মধ্যে অবসর সুবিধা ও কল্যাণ ট্রাস্টের পাওনা প্রদান ও শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন থেকে অতিরিক্ত ৪ শতাংশ কর্তন বন্ধ, ৪. স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা ৫. সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের বেতন স্কেল যথাক্রমে ৬ষ্ঠ ও ৭ম গ্রেডে নির্ধারণ, ৬. এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের বদলি প্রথা চালু, ৭. বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকরির বয়সসীমা ৬৫ বছরে উন্নীত করা, ৮. পাবলিক সার্ভিস কমিশনের মতোই শিক্ষক নিয়োগ কমিশন গঠন এবং শিক্ষাপ্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে আনুপাতিক হারে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের পদায়ন, ৯. করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের আর্থিক প্রণোদনা এবং শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে শিক্ষা সহায়ক ডিভাইস বিতরণ, ১০. ম্যানেজিং কমিটি, গভর্নিং বডির সদস্যদের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ এবং ১১. শিক্ষা ক্ষেত্রে বিরাজমান সরকারি ও বেসরকারি সব বৈষম্য দূর করার লক্ষ্যে শিক্ষানীতি-২০১০ এর দ্রুত বাস্তবায়ন।

ছবি : দৈনিক শিক্ষা ডটকম

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শেখ কাওছার আহমেদের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ মো. বজলুর রহমান মিয়া।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা মাত্র ২৫ শতাংশ উৎসব ভাতা, ১০০০ টাকা বাড়ি ভাড়া এবং ৫০০ টাকা চিকিৎসা ভাতা পান। শিক্ষক-কর্মচারীদের অবসরে যাওয়ার পর অবসর সুবিধা ও কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা পেতে বছরের পর বছর অপেক্ষা করতে হয়। অবসরে যাওয়ার আগেই বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করেন অনেক শিক্ষক-কর্মচারী। এছাড়াও কোনো সুবিধা না দিয়েই বেতন থেকে অতিরিক্ত ৪ শতাংশ কর্তন করা হচ্ছে। নেই কোনো বদলি কিংবা পদোন্নতির সুবিধা।

১১ দফা দাবি তুলে ধরে বলা হয়, আমরা বিশ্বাস করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের মাধ্যমিক শিক্ষাকে জাতীয়করণের দাবি পূরণ করবেন। এছাড়াও ইউনেস্কো আইন অনুযায়ী শিক্ষা খাতে জাতীয় বাজেটের ২০ শতাংশ অথবা জিডিপির ৬ শতাংশ বরাদ্দ দেবেন। এর ব্যত্যয় ঘটলে ঈদের পর আমরা কঠোর কর্মসূচিতে যাব।

সংবাদ সম্মেলনে বিটিএ-এর উপদেষ্টামণ্ডলীর অন্যতম সদস্য সদ্য বাবু দাস গুপ্ত, আশিষ কুমার, সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মো. আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি আলী আসগর হাওলাদার, বেগম নূরুন্নাহার, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু জামিল মো. সেলিম, কেন্দ্রীয় সদস্য প্রবীর রঞ্জন দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

একাদশে ম্যানুয়ালি ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু - dainik shiksha একাদশে ম্যানুয়ালি ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন শুরু শিক্ষার ১৪ খাতে ভয়াবহ দুর্নীতি - dainik shiksha শিক্ষার ১৪ খাতে ভয়াবহ দুর্নীতি নড়াইলের সব স্কুল-কলেজ-মাদরাসায় মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ - dainik shiksha নড়াইলের সব স্কুল-কলেজ-মাদরাসায় মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ শিক্ষক হত্যা-লাঞ্ছনা জাতীয় লজ্জা : পরিকল্পনামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষক হত্যা-লাঞ্ছনা জাতীয় লজ্জা : পরিকল্পনামন্ত্রী অধ্যাপক রতন সিদ্দিকীর বাড়িতে হামলা - dainik shiksha অধ্যাপক রতন সিদ্দিকীর বাড়িতে হামলা ছাত্রীর শ্লীলতাহানি : সালিশে শিক্ষককে দুই লাখ টাকা জরিমানা - dainik shiksha ছাত্রীর শ্লীলতাহানি : সালিশে শিক্ষককে দুই লাখ টাকা জরিমানা শিক্ষক হত্যা : ১১ দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন - dainik shiksha শিক্ষক হত্যা : ১১ দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন please click here to view dainikshiksha website