শিক্ষক নিয়োগে বড় পরিবর্তন : এক আবেদনেই ৪০ পদে অংশগ্রহণ - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা

শিক্ষক নিয়োগে বড় পরিবর্তন : ২শিক্ষক নিয়োগে বড় পরিবর্তন : এক আবেদনেই ৪০ পদে অংশগ্রহণ

রুম্মান তূর্য |

প্রচলিত বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তাহলে চতুর্থ ধাপে কেমন হচ্ছে ইনডেক্সধারী অর্থাৎ ইতোমধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের নিয়োগ প্রক্রিয়া? একটি আবেদনে কয়টি শিক্ষক পদে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন প্রার্থীরা? কেমন এগুচ্ছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) পরিকল্পনা? এসব নিয়ে দৈনিক আমাদের বার্তার দুই পর্বের এই বিশেষ ধারাবাহিক প্রতিবেদন।  

একটি আবেদনের মাধ্যমে নিবন্ধিত প্রার্থীদের ৪০টি শিক্ষক পদে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়ার পরিকল্পনা করছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তারা দৈনিক আমাদের বার্তাকে জানিয়েছেন, এ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা হয়েছে। টেলিটকের সঙ্গেও আলোচনা চলছে। তবে কোনো কিছুই এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

প্রসঙ্গত, এতোদিন প্রার্থীরা একটি আবেদনের মাধ্যমে একটি পদে নিয়োগ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারতেন। প্রতিটি আবেদনে প্রার্থীদের খরচ হতো ২৩০ টাকা। এতে  ৪০টি শিক্ষক পদে আবেদন করতে একজন নিবন্ধিত প্রার্থীর ৯ হাজার ২০০ টাকা লাগতো। এ নিয়ে তাই প্রার্থীরা আপত্তি জানিয়ে আসছিলেন। নতুন পদ্ধতি বাস্তবায়িত হলে তারা একটি আবেদনের মাধ্যমে মাত্র এক হাজার টাকা ফি দিয়ে ৪০টি পদে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন।  

এ বিষয়ে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান মো. এনামুল কাদের খান দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, প্রার্থীদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে আবেদন ফি কমানোর বিষয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ১টি আবেদনের মাধ্যমে ৪০টি পদে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়ার চিন্তা করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে আবেদন ফি নির্ধারণ করা হবে এক হাজার টাকা। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি মহোদয়ের সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে। এখন টেলিটকের মাধ্যমে আবেদন নেয়া হয়। তাই তাদের সঙ্গেও এ নিয়ে আলোচনা করছি। সব ঠিক থাকলে আগামী নিয়োগ প্রক্রিয়াতেই প্রার্থীরা নতুন সুবিধা পাবেন। এতে প্রার্থীদের অর্থ সাশ্রয় হবে। ভোগান্তি কমবে।

এদিকে একটি আবেদনে ৪০ পদে অংশগ্রহণের বিষয়টি টেলিটক প্রক্রিয়া করতে পারবে কী-না তা নিয়ে এনটিআরসিএ কর্মকর্তাদের মনে সংশয় রয়েছে। তারা বলছেন, টেলিটক যদি বিষয়টি সমন্বয় করতে না পারে তবে বিরাট জটিলতা সৃষ্টি হতে পারে। 

৬৪ হাজার স্কুল পেলো ১৮৬ কোটি টাকা - dainik shiksha ৬৪ হাজার স্কুল পেলো ১৮৬ কোটি টাকা ঢাবিতে ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা - dainik shiksha ঢাবিতে ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা নতুন এমপিওভুক্তরা অনিশ্চয়তায় - dainik shiksha নতুন এমপিওভুক্তরা অনিশ্চয়তায় অবৈধ ফরহাদই শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ - dainik shiksha অবৈধ ফরহাদই শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ মদ খেয়ে স্কুলে মারামারি : সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী বহিষ্কার - dainik shiksha মদ খেয়ে স্কুলে মারামারি : সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী বহিষ্কার টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালা অনুমোদন - dainik shiksha টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালা অনুমোদন শিক্ষকদের তথ্য চায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ড - dainik shiksha শিক্ষকদের তথ্য চায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এসএসসি ভোকশনাল : আগামী বছর দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা সব বিষয়ে - dainik shiksha এসএসসি ভোকশনাল : আগামী বছর দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা সব বিষয়ে please click here to view dainikshiksha website