সরকারিকরণসহ পাঁচ দাবিতে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সমাবেশ - দৈনিকশিক্ষা

সরকারিকরণসহ পাঁচ দাবিতে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সমাবেশ

দৈনিকশিক্ষা প্রতিবেদক |

এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের দাবিতে সমাবেশ করেছেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা। শনিবার সরকারিকরণসহ মোট পাঁচ দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সংগঠন বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদ। সহকারী প্রধান শিক্ষক সমিতি ও সহকারী শিক্ষক সমিতির নেতারও সমাবেশে অংশ নেন।

প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদের সভাপতি নৃপেন্দ্র চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে এ সমাবেশে শিক্ষকরা পাঁচ দফা দাবি জানান।

দাবিগুলো হলো, প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সহ-প্রধানদের যথাক্রমে ষষ্ঠ গ্রেড এবং সপ্তম গ্রেড দেয়া, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকদের চাকরি জীবনে দুটি উচ্চতর স্কেল দেয়ার সুস্পষ্ট ঘোষণা, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা দেয়া, ঐচ্ছিক বদলি ব্যবস্থা চালু করা এবং মাধ্যমিক স্তরের এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণ।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. মুজিবুর রহমান বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক দুলাল চন্দ্র চৌধুরী, সহকারী প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম অপু, সহকারী শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদের সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল, মোহাম্মদ শফি উদ্দিন, বাবু রামচন্দ্র মিত্র, ফেরদৌস হেলাল, আব্দুর রশিদসহ অনেকে।

সমাবেশের সমাপনী বক্তব্যে প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদের সভাপতি নৃপেন্দ্র চন্দ্র দাস বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশে সীমাহীন অর্থনৈতিক সমস্যার মধ্যেও প্রাথমিক শিক্ষাকে সরকারিকরণ করে গেছেন। তারপর অর্ধশত বছর পার হলেও মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ হলো না। বৈষম্যের শিকার থেকে গেলো মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। তাই বার বার আফসোস করে বলতে শোনা যায়, বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে শিক্ষার এ বৈষম্য নিরসন হতোই হতো। তবে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে তাঁর পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করে যাচ্ছেন, সে ধারাবাহিকতা রক্ষা করে জাতির পিতার অসমাপ্ত কাজ মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থা সরকারিকরণ করবেনই করবেন-এ আমাদের বিশ্বাস।

দাবি আদায়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদ। এ পাঁচ দাবি আদায়ে শিক্ষকরা আগামী ৩ মে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কালো ব্যাচ ধারণ করবেন। ২৫ থেকে ৩১ মে সংসদ সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে পাঁচ দফা দাবি উপস্থাপন করবেন। সরকারিকরণসহ এসব দাবি আদায়ের ৩ জুন জেলায় জেলায় শিক্ষকদের নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করবেন। এরপরও জাতীয় বাজেটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণসহ দাবিরাওয়া বাস্তবায়ন না হলে কেন্দ্রীয় কমিটি সভা করে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবে।

বেশ কয়েকদিন ধরেই সরকারিকরণের দাবিতে সরব শিক্ষক সংগঠনগুলো। গত বৃহস্পতিবার কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় একটি স্কুলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, চাইলেই দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণ করার মতো এতো বড় একটা সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। প্রথমেই সরকারিকরণকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর মান যাচাই করতে হবে, সেখানে সরকারিকরণ হওয়ার পরে শিক্ষার মান কি কমেছে? না বেড়েছে? আমাদের মূল লক্ষ্যই হচ্ছে শিক্ষার মান বৃদ্ধি করা। দ্বিতীয়তঃ সারাদেশের এতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারিকরণ করবার সক্ষমতা সরকারের থাকতে হবে। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষা ডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষা ডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

ছাত্রদলের ২৬০ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা - dainik shiksha ছাত্রদলের ২৬০ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ছাত্রলীগের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী কওমি মাদরাসার ঐতিহ্য নষ্ট করতে চান - dainik shiksha ছাত্রলীগের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী কওমি মাদরাসার ঐতিহ্য নষ্ট করতে চান ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে - dainik shiksha ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে সব সময় গাছ লাগানো আমাদের নীতি ছিলো: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha সব সময় গাছ লাগানো আমাদের নীতি ছিলো: প্রধানমন্ত্রী কখনো বিদ্যালয়ে যায়নি তিন কোটি মানুষ - dainik shiksha কখনো বিদ্যালয়ে যায়নি তিন কোটি মানুষ বিসিএস ছেড়ে নন-ক্যাডারে যোগ দিলেন কর্মকর্তা - dainik shiksha বিসিএস ছেড়ে নন-ক্যাডারে যোগ দিলেন কর্মকর্তা ১৯ জন শিক্ষক বেতন পান না ৭ মাস ধরে - dainik shiksha ১৯ জন শিক্ষক বেতন পান না ৭ মাস ধরে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0029740333557129