স্কুলে-স্কুলে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই - বই - দৈনিকশিক্ষা

স্কুলে-স্কুলে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই

নিজস্ব প্রতিবেদক |

প্রতি বছরের মতো এবারও  নতুন শিক্ষাবর্ষে নতুন বই পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। তবে, করোনা মহামারির কারণে এবার বই উৎসব করে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধির কথা চিন্তায় স্কুল থেকেই বই বিতরণ করা হচ্ছে।

শুক্রবার (১ জানুয়ারি) বছরের প্রথম দিন স্কুলে-স্কুলে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ শুরু হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা স্কুলে এসে বই সংগ্রহ করছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিচ্ছেন শিক্ষকরা।  এ বছর শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিতে প্রায় ৩৫ কোটি নতুন বই ছাপিয়েছে সরকার। 

গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) পাঠ্যবই বিতরণ কার্যক্রমের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতি বছর গণভবনে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে বই উৎসব উদ্বোধন করা হলেও এবার করোনার কারণে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। আজ থেকে সারাদেশে পর্যায়ক্রমে ১২ দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে বিতরণ করা হবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের পাঠ্যপুস্তক।

রাজধানীর সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল কলেজে শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজের নবনিযুক্ত অধ্যক্ষ লে. কর্নেল কামাল আকবর, সদ্য বিদায়ী অধ্যক্ষ লে. কর্নেল কাজী শরীফ উদ্দিন পদাতিক ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো: জহিরুল ইসলাম। লে. কর্নেল কামাল আকবর বলেন, বিনামূল্যে বই বিতরণের জন্য ঝড়ে পড়া অনেক শিশুই আজ শিক্ষার আলো দেখতে পেরেছে। বই হল সেই প্রকৃত বন্ধু যা পড়ে মানুষ প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে। তাই শিক্ষার্থীদের তিনি বেশি বেশি বই পড়তে বলেন। লে. কর্নেল কাজী শরীফ উদ্দিন বছরের শুরুতে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী ও তার মন্ত্রিপরিষদকে ধন্যবাদ জানান । ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো: জহিরুল ইসলাম সকল অভিভাবককে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী  সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী পাঠ্যবই গ্রহণ করার অনুরোধ জানান। এ সময় কলেজের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

নীলফামারীতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে শিক্ষা মন্ত্রণালের নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২১ শিক্ষাবষের্র ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়েছে। সকালে নীলফামারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী।এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ আজাহারুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এলিনা আক্তার ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম। জানা গেছে, এ বছর নীলফামারীল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর চাহিদা অনুযায়ী স্কুল, মাদরাসা, কারিগরি ও ভোকেশনালে ২ লক্ষ ৭৩ হাজার ৭৮৪ জন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ৩৫ লক্ষ ২ হাজার ৬৫৭ কপি বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।   

যশোরের অভয়নগর উপজেলায় ১৭২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক থেকে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার আমডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়। বিদ্যালয়ের কার্য নির্বাহী সংসদের সভাপতি মহাদেব রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন অভয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ ফরিদ জাহাঙ্গীর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজমুল হুসেইন খাঁন, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. মাসুদ করিম, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফারুক হোসেন সাগর, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল গফ্ফার বিশ্বাস ও  বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাসুদেব কুমার গাইন।  

বই বিতরণ শেষে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. মাসুদ করিম দৈনিক শিক্ষাকে জানান, সরকারি নির্দেশে বছরের প্রথম দিনেই ঘরোয়াভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলার ১৭২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের মাঝে একযোগে বিনামূল্যে বই তুলে দেয়া হয়েছে।

এদিকে বরগুনার আমতলী উপজেলার গোজখালী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বই বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ হয়। বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপজেলা যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মো. আব্দুস সোবাহান লিটন।

এদিকে বছরের প্রথম দিন বই পেয়েছে আমতলী উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৪ হাজার ৩০০ কোমলমতি শিশু। সরকারি নির্দেশনা মতে শুক্রবার শিক্ষকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশু ও অভিভাবকদের হাতে বই তুলে দিয়েছেন। দীর্ঘদিন পর স্কুলে এসে বই পেয়ে উচ্ছাসিত ও উৎফুল্ল কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে সারা দেশের স্কুল বন্ধ রয়েছে। সেই মুহুর্তে বছরের প্রথম দিন কোমলমতি শিশুদের হাতে বই তুলে দিতে সিদ্ধান্ত নেন সরকার। সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমতলী উপজেলার ১৫৩ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা ২৪ হাজার ৩০০ শিশু ও অভিভাবকদের হাতে বই তুলে দিয়েছেন।

আমতলী বন্দর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী নওরিন জাহান পূর্ণতা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, বহুদিন পরে বিদ্যালয়ে এসে নতুন বই পেয়েছি। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়।  কাউনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফেরদৌস আলম রাসেল দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, সরকারি নির্দেশনা মতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই বিতরণ করা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ মজিবুর রহমান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, সরকারী নির্দেশনা অনুসারে উপজেলার ১৫৩টি বিদ্যালয়ে ২৪ হাজার ৩০০ কোমলমতি শিশুদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়েছে। শিশু ও অভিভাবকরা বিদ্যালয় এসে বই নিয়েছেন।

এদিকে দিনাজপুরের খানসামায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে বই বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার মাধ্যমে বই বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু হাতেম ও ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আজমুল হক, উপজেলা শিক্ষা অফিসার আজমল হোসেন, সহকারী শিক্ষা অফিসাররা, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

লালমনিরহাট কেডি বুড়ি কুড়া সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় শিক্ষাথীর মাঋে বই বিতারণ। উপস্থিত ছিলেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মুকুল চন্দ্র, সভাপতি রমেষ চন্দ্র বম্মন, মহেন্দ্রনগর ৫ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আব্দুর রহমান। 

এদিকে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামিক স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ করা হয়েছে। উপস্থিত ছিলেন স্কুল এন্ড কলেজ গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও সেন্টমার্টিন ইউনিয়নের  চেয়ারম্যান নুর আহমদ, স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ শাহ জালাল সরকার, স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র ও দ্বীপের শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব খোরশেদ আলম।

জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের সুরক্ষিত রাখতে এবার প্রতিটি শ্রেণির বই বিতরণের জন্য মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক স্কুলগুলোকে তিন দিন সময় দেয়া হয়েছে। ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বই বিতরণে ১২ দিন সময় পাবে স্কুলগুলো।  স্কুলগুলো আলাদা আলাদাভাবে প্রতিটি শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বই বিতরণের ব্যবস্থা করবে। 

প্রতিটি শ্রেণির বই বিতরণে তিন দিন করে সময় পাবে মাধ্যমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক স্কুলগুলো। ১ জানুয়ারি থেকে ৩ জানুয়ারি ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের, ৪ থেকে ৬ জানুয়ারি ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীর, ৭ থেকে ৯ জানুয়ারি ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের এবং ১০ থেকে ১২ জানুয়ারি ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ করতে এ স্কুলগুলোকে বলেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

এদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বই ১ জানুয়ারি বিতরণ শুরু হয়েছে। স্কুল থেকেই শিক্ষার্থীরা বই নিচ্ছেন। একদিনেই প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বই বিতরণ করা যাবে বলে মনে করছেন মাঠ পর্যায়ের প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের। তবে, যেসব প্রতিষ্ঠানে ৬০০ জনের বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে সে স্কুলগুলোর বই বিতরণে তিন দিন সময় পাবে।  

জানা গেছে, বই বিতরণে স্কুলগুলোতে শ্রেণিভিত্তিক বুথ করা হয়েছে। একজন শিক্ষকরা একটি বুথের দায়িত্বে থাকবেন। শিক্ষার্থীরা শ্রেণি ওয়ারি বুথ থেকে বই সংগ্রহ করবে। অনেক উপজেলায় বইয়ের সাথে শিক্ষার্থীদের মাস্ক ও হ্যান্ড সেনিটাইজার দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব (লিংক যাবে) করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী অনলাইন পরীক্ষা সুফল বয়ে আনবে না : উপাচার্য - dainik shiksha অনলাইন পরীক্ষা সুফল বয়ে আনবে না : উপাচার্য মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঈদের আগে জামা-জুতার টাকা পেল না শিক্ষার্থীরা, উপবৃত্তি ৫০০ টাকায় উন্নীত করার সুপারিশ - dainik shiksha ঈদের আগে জামা-জুতার টাকা পেল না শিক্ষার্থীরা, উপবৃত্তি ৫০০ টাকায় উন্নীত করার সুপারিশ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে - dainik shiksha ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website