স্কুল মাঠে পশুর হাট, জানে না কর্তৃপক্ষ - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

স্কুল মাঠে পশুর হাট, জানে না কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাব লাগোয়া গোপীবাগ বালুর মাঠ আর কমলাপুরে বিশ্বরোডের পাশে ফাঁকা জায়গায় কোরবানির পশুর হাটের অনুমতি দিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। ব্রাদার্স ক্লাবের নামে ইজারা নেওয়া হলেও নির্দিষ্ট স্থানের বাইরে পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি শেষ করেছেন স্থানীয় কাউন্সিলর ও কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা। সেটি গোপীবাগ বালুর মাঠের পাশে শেরেবাংলা রেলওয়ে স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে; কিন্তু বিষয়টি জানে না স্কুল কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, ব্রাদার্স ক্লাবের ফুটবল দলের ম্যানেজার আমের খানের নামে দুই কোটি ৫২ লাখ টাকায় পশুর হাট ইজারা নেওয়া হয়েছে। কিন্তু হাটের সব কিছু দেখভাল করছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুলতান মিয়া ও থানা আওয়ামী লীগের সাবেক কোষাধ্যক্ষ কমলাপুরের সাকিল আহমেদ ও মুগদা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম আহমেদ।

স্কুল মাঠে বালু ফেলে, বাঁশ গেড়ে পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি চলছে। ছবি : সংগৃহীত

এ বিষয়ে কাউন্সিলর সুলতান মিয়া  বলেন, ‘ইজারা নিয়েছে ব্রাদার্স ক্লাবের ফুটবল দলের ম্যানেজার আমের খান। হাট পরিচালনা কমিটিতে আমি আছি। কমলাপুরের সাকিল ও শামীম মিলে দেখছি।’

কেন স্কুলের মাঠে পশুর হাট বসানো হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘স্কুলের মাঠের ব্যাপারে স্কুলের সভাপতির সম্মতি আছে। তার পরও যদি সমস্যা হয়, তবে বন্ধ করে দেব। এ ছাড়া স্কুলে কারো থাকার ব্যবস্থা করা হয়নি।’

শেরেবাংলা রেলওয়ে স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল আলিম বলেন, ‘আমাদের সভাপতির কাছ থেকে মৌখিক অনুমতি নিতে পারে। এ বিষয়ে আমি আর কিছু বলতে পারছি না।’

প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি আহকাম উল্লাহ বলেন, ‘স্কুলের মাঠে পশুর হাট বসানো হচ্ছে, সেটা আমি আজই জানলাম। সঙ্গে সঙ্গে আমি বিষয়টি থানায় জানিয়েছি। কমলাপুর, গোপীবাগ ও মুগদা এলাকার আওয়ামী লীগ নেতারা এটি বসাচ্ছেন।’

গতকাল বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের সামনে দিয়ে গোপীবাগের দিকে এগোলে লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাব লাগোয়া গোপীবাগ বালুর মাঠ এবং কমলাপুরসংলগ্ন বিশ্বরোডের পাশে খালি জায়গায় কোরবানির পশুর হাট বসানো হয়েছে। এর আগেই হাতের বাঁ পাশে রয়েছে কমলাপুর শেরেবাংলা রেলওয়ে স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও শেরেবাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য রয়েছে একটি ছোট্ট খেলার মাঠ। যেখানে মাঠ খুঁড়ে, বাঁশ গেড়ে পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি চলছে। আর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে ব্যবসায়ীদের। কিন্তু এ বিষয়ে কিছুই জানে না স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে কাউন্সিলর বলছেন, ওখানে শুধু মাইকের লোকজন থাকছে।

গত বছরও কিছু গরু রাখা হয়েছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির মাঠে। ফলে গর্ত হওয়ায় গত এক বছর ওই মাঠে আর শিক্ষার্থীরা খেলতে পারেনি। এবার পুরো মাঠে হাট বসালে মাঠটি শিক্ষার্থীদের খেলার সম্পূর্ণ অনুপযুক্ত হয়ে পড়বে।

শেরেবাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী রাব্বি থাকে মুগদায়। মাঠে পোঁতা বাঁশের ফাঁক গলিয়েই খেলছিল তারা কয়েকজন। রাব্বি জানায়, গত বছর এবারের মতো করেনি। এবার বাঁশ গেড়ে একেবারে সব বন্ধ করে দিয়েছে।

আমের খান বলেন, ‘এটি ক্লাবের নামে নেওয়া হলেও যাবতীয় বিষয় আমরা দেখি না। রেওয়াজ অনুযায়ী ক্লাবের বিভিন্ন দায়িত্বে থাকাদের নামে হাট ইজারা নেওয়া হয়। এবার আমার নামে নেওয়া হয়েছে। দেখাশোনার দায়িত্ব আমাদের নয়। সব সময় এটি স্থানীয় কাউন্সিলর এবং তিন এলাকার দায়িত্বে থাকে। আর স্কুলের মাঠে হাট বসানোর বিষটি আমার জানা নেই। ক্লাবের নামে নেওয়া হলেও আমাদের কোনো কর্তৃত্ব নেই।’

নাছির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা - dainik shiksha নাছির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা পরীক্ষা পেছাতে পারে পাঁচ-ছয় মাস তবু অটোপাস নয় : চেয়ারম্যান - dainik shiksha পরীক্ষা পেছাতে পারে পাঁচ-ছয় মাস তবু অটোপাস নয় : চেয়ারম্যান দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮০ ভাগ শিক্ষার্থীই অনলাইনে পরীক্ষায় অনাগ্রহী - dainik shiksha ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮০ ভাগ শিক্ষার্থীই অনলাইনে পরীক্ষায় অনাগ্রহী শিক্ষামন্ত্রীও এক বছর ছুটিতে গেলে দেশের কী ক্ষতি হবে, প্রশ্ন মিলনের - dainik shiksha শিক্ষামন্ত্রীও এক বছর ছুটিতে গেলে দেশের কী ক্ষতি হবে, প্রশ্ন মিলনের আগামী বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ১ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha আগামী বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ১ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ পরীমণিকে নির্যাতনকারী কে এই নাছির মাহমুদ? - dainik shiksha পরীমণিকে নির্যাতনকারী কে এই নাছির মাহমুদ? পরীক্ষা এক বছর না দিলে ক্ষতি হবে না : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha পরীক্ষা এক বছর না দিলে ক্ষতি হবে না : শিক্ষামন্ত্রী সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জুন পর্যন্ত - dainik shiksha সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জুন পর্যন্ত ৬ষ্ঠ-৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha ৬ষ্ঠ-৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ please click here to view dainikshiksha website